আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ভৈরব নদ বাঁচাতে মানববন্ধন

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  যশোরের অভয়নগরে ভৈরব নদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও দখলমুক্ত করার দাবিতে শ্রমিকরা মানববন্ধন করেছে। আজ বুধবার সকালে যশোর-খুলনা মহাসড়কের নূরবাগ বাস্ট্যান্ড অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে অভয়নগর নওয়াপাড়া পৌর হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়ন।সকাল ১১টা থেকে চলা ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনে অংশ নেয় কয়েক হাজার ঘাট শ্রমিক।

 

সকল থেকে শ্রমিকরা ঘাটে লোড-আনলোডের কাজ বন্ধ রেখে নদী বাঁচাও-শ্রমিক বাঁচাও, অবৈধ জেটি স্থাপনা উচ্ছেদ, নদী খনন কাজ অব্যাহত রাখা সহ গাইড ওয়াল নির্মাণের দাবি সংবলিত প্লাকার্ড-ব্যানার নিয়ে খণ্ড খণ্ড মিছিল সহকারে নূরবাগে সমাবেত হয়।স্লোগানে স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে বন্দরনগরী নওয়াপাড়া। একপর্যায়ে যশোর-খুলনা মহাসড়কে বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল।

 

অভয়নগর নওয়াপাড়া পৌর হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফাল্গুন মণ্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রাজঘাট-নওয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা শ্রমিক লীগ ও যশোর জেলা ট্রাক, ট্যাংক লরি ও কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রবিন অধিকারী ব্যাচা, হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ কামরুল ইসলাম সরদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকরাম ফারাজী, বেলাল হোসেন, শ্রমিক নেতা আমির আলী গোলদার, মোল্যা হাবিবুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম মোল্যা, বাবুল মোল্যা, সোহেল রানা, নাজিম উদ্দিন, নজরুল ইসলাম খান, প্রসেনজিৎ দাস, ছাত্রলীগ নেতা শেখ আব্দুল্লাহ প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শ্রমিক নেতা শেখ আমিনুর রহমান।

 

বক্তারা বলেন, এক শ্রেণির ব্যবসায়ী ভৈরব নদ দখল করে নির্মাণ করছে ঘাট, গুদাম, স্থাপনা করছে জেটি ও লংবুম। ফলে নদীর স্রোতের গতিধারা বাঁধাগ্রস্ত হয়ে পলি জমে ভরাট হচ্ছে।

 

ব্যাহত হচ্ছে নৌযান চলাচল। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এ সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদসহ ভৈরব নদ দখল করে নির্মিত জেটি ও লংবুম অপসারণের দাবি জানান তারা। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারি প্রদান করা হয়।