আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাজশাহী থেকে ট্রেন চলাচল করছে আগের নিয়মে

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: রাজশাহীতে প্রায় ছয় মাস পর স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে ট্রেন চলাচল। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) থেকে আগের মতো প্রতি আসনে যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। ফলে দীর্ঘদিন পর শতভাগ আসনে যাত্রী নিয়ে গন্তব্যে ছুটছে ট্রেন।

 

জানা যায়, বুধবার থেকে অর্ধেক আসনে যাত্রী নেওয়ার নিয়ম বদল করে শতভাগ আসনে ট্রেনের টিকিট বিক্রি হলেও বন্ধ রয়েছে স্ট্যান্ডিং টিকিট। ফলে আপাতত যাত্রীদের দাঁড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ বন্ধ রয়েছে। রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট ছাড়া প্রবেশের সুযোগ ও বন্ধ রয়েছে। এতে করে অতিরিক্ত যাত্রী দাঁড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ কমেছে অসাধু রেল কর্মকর্তাদের।

 

বুধবার সকালে রাজশাহী রেলস্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, কাউন্টারে ট্রেনের ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। বাকি ৫০ শতাংশ টিকিট অনলাইন থেকে কিনছেন যাত্রীরা। শতভাগ টিকিট দেওয়ার ফলে অনলাইন ও কাউন্টার থেকে যাত্রার ১০ দিন আগে অগ্রিম টিকিট কিনতে পারছেন যাত্রীরা।

 

এর আগে সাড়ে পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর স্টেশনের কাউন্টার থেকে ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছিল গত শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে। কিন্তু তখন ও পূর্ব ঘোষণা ও সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি হচ্ছিলো। যাত্রীরা বলছেন, সকলের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু এখন জনগনকে সচেতনভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরে চলাচল করতে হবে।

 

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে এক যাত্রী হাসান জাফর ইকবাল জানান, ‘কর্তৃপক্ষ সকলের সুবিধার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু আমার ব্যক্তিগত মতে আরো কিছুদিন কর্তৃপক্ষ অপেক্ষা করা উচিত ছিল। কারণ আগামীতে শীত আসছে।

 

আর করোনাভাইরাস এর বেশ কিছু লক্ষণ শীতের মধ্যে বেশি দেখা যায় মানুষের মধ্যে। তাই শীতকালীন সময় অন্তত কর্তৃপক্ষের দেখা উচিত ছিল যে ফলাফল কি বের হচ্ছে।’আর এক যাত্রী সকেরা খাতুন জানান, এখন সব দিক ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে।

 

এজন্য যান, রেল সহ সবকিছু ধীরে ধীরে স্বাভাবিক করে দেওয়াটাই ভালো।রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার আব্দুল করিম বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ বুধবার সকাল থেকেই শতভাগ যাত্রী নিয়ে সকল আন্তঃনগর এবং অন্যান্য ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

 

এর মধ্যে ৫০ শতাংশ টিকিট কাউন্টারে এবং বাকি ৫০ শতাংশ টিকিট অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করা হচ্ছে।তিনি আরো জানান, রেলওয়ের পক্ষ থেকে প্রতিনিয়ত জনসাধারণকে স্বাস্থ্য বিধি মানার কথা বলা হচ্ছে এবং সকলের মাস্ক নিশ্চিত করতেও কাজ করছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।