আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ঘূর্ণিঝড় স্যালির তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড যুক্তরাষ্ট্র

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ঘূর্ণিঝড় স্যালির আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল।স্থানীয় সময় বুধবার সকালে পেনসাকোলার ৩৫ মাইল পশ্চিমে হারিকেন স্যালি আঘাত হানে। এ সময়ে এটি ক্যাটাগরি টু হারিকেনে রূপ নেয়।

 

তখন বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ১০৫ মাইল। ঝড়ের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে ফ্লোরিডা সীমান্ত অঞ্চল ও আলাবামা উপকূল।এদিকে স্যালির আঘাতে একজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

 

এছাড়া ঝড়ের তান্ডবে গাছপালা উপড়ে গেছে, রাস্তাঘাট বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে এবং বাড়িঘর বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়েছে।ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার জানায়, ফ্লোরিডার পানহান্ডলে ও আলবামার দক্ষিণাঞ্চলে বিপর্যয়কর ও প্রাণঘাতী বন্যা অব্যাহত রয়েছে।

 

মার্কিন সংবাদ মাধ্যম আলাবামার অরেঞ্জ বিচ এলাকায় একজনের মারা যাওয়ার খবর প্রকাশ করেছে।ফ্লোরিডার পেনসাকোলা শহরের ৫০ কিলোমিটার পূর্বে সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে।

 

সেখানকার রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে আছে। সড়কগুলোকে মনে হচ্ছে লেক এবং তাতে গাড়িগুলো ডুবে আছে। এ অবস্থায় পেনসাকোলার পুলিশ জনগনকে ঘর থেকে বেরুতে নিষেধ করেছে।

 

এদিকে পেনসাকোলার লোকজন খাবার সংগ্রহ কিংবা দরোজার সামনে বালির বস্তা ফেলার মতো পর্যাপ্ত সময় হাতে পায়নি বলে জানা গেছে।পেনসাকোলার একজন বাসিন্দা জেফ গার্ডনার বলেন, তার পরিবার বিস্মিত হয়ে দেখল তারা হারিকেনের মধ্যে আটকা পড়েছে।

 

আঘাত হানার পর এটি দূর্বল হয়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলের দিকে চলে গেছে। এদিকে ঝড়ের কারণে আলাবামা ও ফ্লোরিডায় ৫ লাখ ১৫ হাজারেরও বেশি বাড়ি বিদ্যুৎ বিহীন অবস্থায় রয়েছে।আলাবামা গভর্ণর কে আইভি সোমবার রাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন।

 

তিনি জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে সময় লাগবে।ফ্লোরিডার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের গভর্ণর রন ডেসানটিস জরুরি অবস্থা জারি করেন। ঝড় আঘাত হানার আগে সেখানে শত শত ন্যাশনাল গার্ড ও উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত রাখা হয়।উল্লেখ্য, আটলান্টিকে একইসময়ে ৫টি ক্রান্তীয় ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। স্যালি তার একটি।