আজ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আইপিএল নাকি ‘ইন্ডিয়ান ভুঁড়ি লিগ’?

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দীর্ঘ পা২চ মাস লকডাউনে কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন ক্রিকেটাররা। গতকাল শনিবার থেকে শুরু হওয়া আইপিএলে ক্রিকেটারদের ফিটনেসের অবস্থা দেখে সবার চোখ কপালে উঠেছে।

 

আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে একাধিক খেলোয়াড়ের ফিটনেস ও শারীরিক গড়ন দেখে এমনই প্রশ্ন তুলেছেন ক্রিকেট সমর্থকরা। তাদের প্রশ্ন, এটা কি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) নাকি ‘ইন্ডিয়ান ভুঁড়ি লিগ’?

 

ভারতে এখনো করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ। দেশটির ক্রিকেটাররা দীর্ঘদিন পেশাদার ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন। মাঠে অনুশীলনে নামেননি। বাড়িতেই যতটা শারীরিক কসরৎ করেছেন।

 

আইপিএলের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে গিয়ে দীর্ঘদিন পর তাদের মাঠে প্রত্যাবর্তন ঘটেছে। যে কারণে আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংসে কয়েকজন ভুঁড়িওয়ালা ক্রিকেটার দেখা গেছে।

 

ক্রিকেটারদের সেই ভুঁড়ি নিয়ে টুইট করেন জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে। সংক্ষিপ্ত বার্তায় তিনি বলেন, ‘আজ দুটি স্বাস্থ্যবান কোমর….।’ ভারতীয় হকি দলের সাবেক অধিনায়ক বীরেন রাসকুইনহা তো খেলোয়াড়দের ফিটনেস নিয়ে রীতিমতো প্রশ্ন তুলেছেন।

 

তিনি বলেন, ‘আমি কখনও গলির ক্রিকেটের বেশি খেলিনি। কিন্তু আইপিএলে কয়েকজন খেলোয়াড়কে এত আনফিট দেখে আমি রীতিমতো অবাক। আমি অপর কোনও শারীরিক খেলা স্মরণে আনতে পারছি না, যেখানে খেলোয়াড়রা সর্বোচ্চ পর্যায়ে এরকম ফিটনেস নিয়ে সামলাতে পারে।’

 

ক্রিকেট সমর্থকদের নিশানায় মূলত ছিলেন রোহিত শর্মা ও সৌরভ তিওয়ারি। মুম্বই অধিনায়কের ফিটনেস নিয়ে টুইটারে রীতিমতো ট্রোল করা হয়। একটি বড় গর্তের ছবি পোস্ট করে এক ক্রিকেট সমর্থক বলেন, ‘অনেকে বলেন, গ্রহাণু পড়েছিল।

 

কারোর বিশ্বাস, এটা কেউ খুঁড়েছেন। কিন্তু মনে মনে আমরা জানি, রোহিত শর্মা এখানে ডাইভ দিয়েছিলেন।’ আরেকজন লিখেন, ‘সব বিশালাকার বপু দেখে মনে হচ্ছে ইন্ডিয়ান ভুঁড়ি লিগ হচ্ছে। মনে হচ্ছে বয়স্কদের সিরিজের ম্যাচ হচ্ছে।’