আজ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

দুবাইয়ের কোয়ারেন্টিন ছিল যন্ত্রণার : ধোনি

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: বহুদিন পর মিডিয়ার সামনে ধোনি। ৪৩৭ দিন পর নেমেছেন মাঠে। করোনার লকডাউনে দীর্ঘ ৫ মাস পরিবারের সঙ্গে কাটিয়ে মরুশহরে পা রেখে ৬ দিনের কোয়ারেন্টিন রীতিমতো কষ্টকর হয়ে উঠেছিল।

 

গতকাল শনিবার আইপিএলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ৫ উইকেটের জয় তুলে নিয়ে আইপিএলের শুভ সূচনা করেছে ধোনির চেন্নাই। ম্যাচের আগে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ধোনি শুনিয়েছেন তার কোয়ারেন্টিনে থাকার যন্ত্রণার কথা।

 

ধোনির ভাষায়,  ‘কোয়ারেন্টিনের প্রথম ৬ দিন খুবই কষ্টকর ছিল। এতদিন আপনি নিজের পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়ে এসেছেন এবং তার পরে হঠাৎ করে একটি আলাদা ঘরে আপনাকে রেখে দেওয়া হলে সেটা কখনওই সুখকর হবে না। সকলের ক্ষেত্রেই সেটা প্রযোজ্য। সুন্দর সময় কাটিয়ে আসার পরে কেউই এ ভাবে হতাশ হতে চাইবে না।’

 

দুবাইয়ে পা রাখার পরেই একের পর এক ধাক্কায় সাময়িকভাবে বেসামাল হয়ে পড়েছিল চেন্নাই শিবির। ব্যক্তিগত কারণে দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন অভিজ্ঞ সুরেশ রায়না এবং হরভজন সিং।

 

সেইসঙ্গে একসঙ্গে ১৪জন সদস্যের শরীরে ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। ধোনি অবশ্য সব কিছু সহজভাবেই মেনে নিয়েছেন। নিয়ম মেনে দুবাইয়ে ৬ দিন এবং আবুধাবিতে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন পর্ব কাটিয়ে তরতাজা হয়ে মাঠে নেমেছেন।

 

এতদিন পর মাঠে নামার অভিজ্ঞতা নিয়ে ধোনি বলেন, ‘১৪ দিন পরে মাঠে নামার পরে দারুণ লাগছিল। তা ছাড়া এখানে অনুশীলনের ব্যবস্থাও খুব সুন্দর।

 

লকডাউনে তো স্বাধীনভাবে নিজের মতো জীবন কাটানোর সময় ছিল। সকলের মতো আমিও নিজেকে ফিট রাখতে অনেকটা সময় ব্যয় করেছি। দলের সমস্ত সদস্যকে সুন্দরভাবে সময় কাটানোর জন্যও কৃতিত্ব দিতে হবে।’