আজ ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১৫০-এর নিচে আনব : সালাহউদ্দিনের প্রতিশ্রুতি

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: বাফুফে সভাপতি হিসেবে ১২ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন বাংলাদেশ ফুটবলের একসময়ের সুপারস্টার কাজী সালাহউদ্দিন। আসন্ন বাফুফে নির্বাচনেও তিনি সভাপতি পদপ্রার্থী। গত ২০১২ সালের নভেম্বরে তিনি বলেছিলেন, বাংলাদেশ ২০২২ বিশ্বকাপে খেলবে।

 

কিন্তু ২০২০ সালে দাঁড়িয়ে সেই সম্ভাবনার ছিটেফোঁটাও দেখা যায় না।  এশিয়ান কাপের চূড়ান্ত পর্বে ওঠাই এখন বাংলাদেশের জন্য বিরাট অর্জন। বিশ্বকাপ তো বহুদূর। সেই সালাহউদ্দিন এবার নির্বাচনী ইশতেহারে দিয়েছেন নতুন প্রতিশ্রুতি।

 

১২ বছর আগে সালাহউদ্দিন যখন বাফুফের দায়িত্ব গ্রহণ করেন, তখন বাংলাদেশের র‌্যাংকিং ছিল ১৫০-এর ওপর। সালাহউদ্দিনের আমলেই সেটা ১৯৭-এ নেমে যায়!‍ সবাই যখন ‘ডাবল সেঞ্চুরি’র লজ্জার অপেক্ষায় ছিল, তখন কিছুটা উন্নতি হয় বাংলাদেশের।

 

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে এখন বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৭তম। সোশ্যাল সাইটে সালাহউদ্দিনের বিরুদ্ধে যে প্রচার-প্রচারণা হচ্ছে, তাতে তুলে ধরা হচ্ছে র‌্যাংকিংয়ের বিষয়টি। তাই এবার মাটিতে পা রেখে সালাহউদ্দিন বলেছেন, চতুর্থ মেয়াদ শেষে তিনি বাংলাদেশকে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১৫০-এর নিচে রাখতে চান।

 

আগামী ৩ অক্টোবরের বাফুফে নির্বাচনকে সামনে রেখে আজ রবিবার ৩৬ দফার ইশতেহার ঘোষণা করেছেন সালাহউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি হিসেবে সালাহউদ্দিন বলেছেন, ‘আগামী অক্টোবর ২০২৪ এর মধ্যে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের উন্নতির লক্ষ্যে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। যাতে করে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলকে ১৫০ এর নিচে নিয়ে যাওয়া যায়।’

 

তবে এক সাংবাদিক যখন কাজী সালাহউদ্দিনকে ২০২২ বিশ্বকাপ খেলার কথা মনে করে দিলেন, তার জবাবে তিনি বলেন, ‘এখানে একটা কনফিউশন আছে। আমি বলেছি, আমরা বিশ্বকাপ খেলার চেষ্টা করব। একটা টার্গেট নিয়ে নামতে হবে তো। আমি যদি মক্কায় যেতে চাই, তাহলে মক্কার রাস্তাতেই হাঁটতে হবে। আমরা কাজ শুরু করেছি বাস্তবিকভাবে।’