আজ ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এলএ শাখা সহ সর্বক্ষেত্রে দূর্নীতি বন্ধের দাবীতে জাসদের মানববন্ধন বুধবার

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: কক্সবাজারের উন্নয়ন প্রকল্প সমূহে জমি অধিগ্রহণকে কেন্দ্র করে জেলা প্রশাসনের এলএ শাখা সহ সকর ক্ষেত্রে দূর্নীতি বন্ধ করে সুশাসন নিশ্চিত করার দাবী জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ, কক্সবাজার জেলা নেতৃবৃন্দরা।বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টায় দলীয় কার্যালয়ে জেলা জাসদ সভাপতি নইমুল হক চৌধুরী টুটুল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জেলা কমিটির জরুরী সভায় নেতৃবৃন্দরা এ দাবী উত্থাপন করেন।

 

এ লক্ষে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে এক মানব বন্ধনের কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়েছে।সভায় বক্তরা বলেন- দূর্নীতির কারণে কক্সবাজার উন্নয়ন প্রকল্প সমূহ বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। যাদের ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে, দুর্নীতির কারণে ভূমির প্রকৃত মালিকরা তাদের ন্যায্যা পাওনা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

 

তাই দূর্নীতিবাজদের অবিলম্বে গ্রেফতার পূর্বক প্রকৃত ভূমির মালিকদের গণশুনানীর মাধ্যমে জমির ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করতে হবে এবং ইতিমধ্যে দূর্নীতি দমন কমিশন (দূদক) এর তালিকায় যাদের নাম এসেছে, উচ্চপর্যায়ের নিরপেক্ষ তদন্ত পূর্বক প্রকৃত দূর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে দ্রæত আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।এছাড়া কক্সবাজার প্রধান সড়কসহ উপ-সড়ক সমূহের উন্নয়ন কাজ বন্ধ থাকার কারণে জনদুর্ভোগ চরমে উঠেছে।

 

তাই দ্রুত রাস্তার উন্নয়ন কাজ শেষ করে জনদুর্ভোগ থেকে জনগণকে মুক্তি দেওয়ার দাবী জানান। পাশাপাশি কক্সবাজারের উন্নয়ন প্রকল্পের অন্যতম স্থান মহেশখালী দ্বীপের মানুষের জেলা শহরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম মহেশখালী জেটি ঘাট দ্রæত সংস্কার করে মানুষের চলাচল উপযোগী করতে হবে এবং ঘাটের ইজারাদাদের নৈরাজ্য বন্ধ করে, নৈরাজ্যবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনেরও দাবী জানান।

 

সভায় আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে জাসদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানব বন্ধন কর্মসূচী সফল করতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল মানুষকে সমবেত হওয়ার আহবান জানান নেতৃবৃন্দরা।সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জেলা জাসদ সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ,

 

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ হোসাইন মাসু, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রফিক উদ্দিন চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক অজিত কুমার দাশ হিমু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পরিতোষ বড়–য়া, জনসংযোগ সম্পাদক মোঃ আবু তৈয়ব, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আবদুল জব্বার, শ্রমিক ও কৃষি শ্রমিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুল হক আসাদ, নারী বিষয়ক সম্পাদক রেজিয়া বেগম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট অনিল কান্তি বড়–য়া, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল করিম সিকদার নোমান,

 

সহ-সম্পাদক এ.কে.এম মাহাবুল ইসলাম, মিজানুর রহমান বাহাদুর, কার্যনির্বাহী সদস্য লস্কর আলী, মোঃ জাকারিয়া, মোঃ আমান উল্লাহ আমান, শাখাওয়াত হোসেন সবুজ, ডালিয়া জামান প্রমুখ।মানব বন্ধন কর্মসূচী শেষে কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে কক্সবাজারের এলএ শাখাসহ সকল ক্ষেত্রে সরকারী কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদদের সমন্বয়ে যে দূর্নীতি শুরু হয়েছে, তা বন্ধে যথোপযুক্ত কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ ও উচ্চ পর্যায়ের বিভাগীয় তদন্ত করে প্রকৃত দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্মারকলিপি প্রদান করা হবে।