আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কান্নায় ভেঙে পড়লেন সুয়ারেজ

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: লিওনেল মেসি শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনা থেকে গেলেও থাকছেন না তার সতীর্থ বন্ধু লুইস সুয়ারেজ। বার্সার সঙ্গে ছয় বছরের সম্পর্কের ইতি টেনে এই উরুগুইয়ান যাচ্ছেন স্প্যানিশ ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে।

 

সুয়ারেজকে নিয়ে একটি বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বার্সেলোনা। এখানে কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন বার্সার হয়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ গোল দাতা এই ফুটবলার।গতকাল বুধবার বার্সার হয়ে শেষেবারের মতো অনুশীলন করেন সুয়ারেজ। অনুশীলন ছেড়ে নিজ গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় তার একটি ছবি ভাইরাল হয়; সেই ছবিতেও দেখা যাচ্ছিল ভেঙে পড়েছেন সুয়ারেজ।

 

আর আজতো বিদায় অনুষ্ঠানে নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি।সুয়ারেজ ২০১৪ সালে লিভারপুল থেকে বার্সেলোনায় যোগ দেন। বার্সার জার্সিতে ২৮৩ ম্যাচে ১৯৮ গোল করেন তিনি। বার্সার হয়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতার মুকুট নিয়ে যাচ্ছেন অ্যাটলেটিকো। বার্সেলোনা নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে সুয়ারেজকে ক্লাবের কিংবদন্তী হিসেবে উল্লেখ করে ধন্যবাদ জানায়।

 

বিদায় অনুষ্ঠানে সুয়ারেজ বলেন, ‘আমি অনেক উত্তেজনা নিয়ে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে যাচ্ছি। আমি এখনো চিন্তা করিনি বার্সেলোনা বিপক্ষে খেলতে নামলে কী হবে। মেসি জানে আমি কী চিন্তা করি, আমিও জানি সে কী চিন্তা করে।

 

সে আশ্চর্য্য হয়েছে, আমি শত্রু ক্লাবে যাচ্ছি। তবে দুজনের সম্পর্ক ঠিকই থাকবে।’বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান আসার পরই জানিয়ে দিয়েছেন, তার পরিকল্পনায় সুয়ারেজ থাকছেন না। নিয়মিত একাদশেও তাকে দেখা যাবে না।

 

এরপর থেকেই সুয়ারজের বার্সা ছাড়ের গুঞ্জন বেড়ে যায়। শেষ পর্যন্ত এটাই সত্য হয়। সুয়ারেজ বার্সার বহুল খরুচে ফুটবলারদের একজন ছিলেন। তার জন্য প্রতি সপ্তাহেই খরচ করতে হয় প্রায় ৪ লাখ পাউন্ড, যা বাংলাদেশি টাকায় ৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।

 

বার্সাও তাকে ছেড়ে দিয়ে কিছু খরচ কমাতে চাচ্ছিল।লিওনেল মেসি, সুয়ারেজ ও নেইমার এই তিনজন বার্সেলোনায় বেশ জনপ্রিয় ছিলেন। মেসি এবার সুয়ারেজকেও হারাচ্ছেন। নেইমার আগেই প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে গেছেন। এবার চলে গেলেন সুয়ারেজও। তিনজনের এমএসএন জুটির এখন শুধু এম’ই থাকছে।