আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

খুলে দেয়া হয়েছে ইউরোপের যে দেশের সব স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: করোনার মহামারির কারণে ইউরোপের অন্য দেশের মতই গত মার্চ মাস থেকে বন্ধ ছিল পর্তুগালের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। দীর্ঘদিন বন্ধের পর অবশেষে গত সোমবার থেকে স্কুল খুলে দেয়া হয়ছে। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ক্লাস শুরু হবে। তবে সবকিছুই হবে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে।

 

জানা যায়, গত মার্চ মাসের ১২ তারিখে পর্তুগাল সরকার এক জরুরি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সকল স্কুল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেয়। তবে এখন থেকে সব স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলা থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছে পর্তুগাল সরকার।

 

স্কুল খুলে দেয়া হলেও করোনার কারণে বিশেষ দিক নির্দেশনা জারি করেছে সরকার। এর মধ্যে সামাজিক দূরত্ব মানতে কঠোর হতে বলা হয়েছে। স্বাভাবিক নিয়মে দুই মিটার দূরত্ব মানলেও স্কুলে মানতে হবে তিন মিটার। ক্লাস করতে হবে মাস্ক পরে। এছাড়া শিক্ষক ও বন্ধুদের সাথে কোলাকুলি নিষেধ করা হয়েছে।

 

স্কুল খোলার ব্যাপারে এক শিক্ষার্থীর বাবা ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী বলেন, আমাদের করোনা নিয়েই বাঁচতে হবে। পরীক্ষা ছাড়াই আমার মেয়েকে পরবর্তী ক্লাসে তুলে দেয়া হয়েছে। সে খুব খুশি অনেকদিন পর তার বন্ধুদের পেয়ে। তিনি আরও বলেন, অনলাইনে শিক্ষাগ্রহণ বাচ্চাদের জন্য কঠিন হয়ে পড়ে। তাই আমরা চাই স্কুল খোলা থাকুক এবং স্বাস্থবিধি মেনেই সবকিছু হোক।

 

এদিকে পর্তুগালের বিশ্ববিদ্যলয়গুলো খুলে দেয়া হয়েছে। নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস শুরু হবে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে। এ ব্যাপারে নোভা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী নাইমুল ইসলাম নাইম বলেন, আমি খুব খুশি আমাদের ক্লাস শুরু হচ্ছে। তবে আমাদের অর্ধেক ক্লাস অনলাইনে আর বাকি ক্লাস হবে ক্যাম্পাসে।

 

পর্তুগালের ইমিগ্রিশন হাই কমিশনার ফর মাইগ্রেশন পেড্রো কালাদো তার বাচ্চার স্কুলে যাওয়ার ছবি দিয়ে ফেসবুকে লেখেন, আমি খুব খুশি তারা আবার বন্ধু-বান্ধব পাচ্ছে ।

 

আমি নতুন ক্লাসে তাদের শুভকামনা জানাচ্ছি।উল্লেখ্য, প্রতি বছর স্কুল-বিশ্ববিদ্যলয় শিক্ষাবর্ষের ক্লাসগুলো সেপ্টেম্বর ১১ তারিখে চালু হলেও এবার করোনার কারণে কয়েকদিন অপেক্ষা করে খুলে দেয়া হল প্রতিষ্ঠানগুলো।