আজ ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শহীদ মুহাম্মদ মঈনুল ইসলামের পিতার ইন্তেকালে ছাত্রশিবিরের শোক

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ছাত্রশিবিরের ৭৫তম শহীদ মুহাম্মদ মঈনুল ইসলামের শ্রদ্ধেয় পিতা মুহাম্মদ দারাজ উদ্দিন মাস্টার এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

 

এক যৌথ শোকবার্তায় ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম ও সেক্রেটারি জেনারেল সালাহউদ্দিন আইউবী বলেন, আমাদের পরম শ্রদ্ধেয় শহীদ-পিতা জনাব মুহাম্মদ দারাজ উদ্দিন মাস্টার আজ ১০:৩০টায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নানিল্লিাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন)।

 

তাঁর ইন্তেকালে ছাত্রশিবির একজন শ্রদ্ধাভাজন অভিভাবককে হারালো। প্রিয় সন্তান মুহাম্মদ মঈনুল ইসলামের শাহাদাতের পরে তিনি বলেছিলেন, “মঈনুল শহীদ হওয়ায় আমি সাময়িকভাবে শোকাহত হলেও শহীদ মঈনুলের পিতা হওয়ায় গর্ববোধ করছি। শহীদ মঈনুলের রক্তের বিনিময়ে যাতে এদেশে ইসলামী হুকুমত কায়েম হয় সেই দোয়া করছি। আজ আমি এক মঈনুলকে হারিয়ে শত-সহস্র মঈনুলকে পেয়েছি। আল্লাহর কাছে কামনা করি আল্লাহ যেন তাঁর মৃত্যুকে শহীদী মৃত্যু হিসেবে কবুল করেন।”

 

শহীদের গর্বিত পিতা হিসেবে তিনি দ্বীনের বিজয়ের জন্য স্বপ্ন দেখে গিয়েছেন আজীবন;প্রত্যাশার দৃষ্টি দিয়ে তাকিয়েছেন প্রিয় কাফেলা বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের প্রতি। ছাত্রশিবিরের প্রতি তাঁর ভালবাসা,উৎসাহ ও দিকনির্দেশনা ছাত্রশিবির নেতাকর্মীরা কোন দিন ভুলবে না। তাঁর ইন্তেকালে ছাত্রশিবিরের সকল জনশক্তি গভীরভাবে শোকাহত।

 

উল্লেখ্য, ২৮ আগস্ট ১৯৯৫ সন্ধ্যা ৬টায় রংপুর টাউন হলের সিরাত মাহফিল শেষে বাসায় ফেরার পথে কারমাইকেল কলেজ রোড,গ্রামীণ কৃষি ফাউন্ডেশনের সামনে ওত পেতে থাকা জাসদ ছাত্রলীগের চিহ্নিত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা উপর্যুপরি বোমার আঘাতে এবং ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত করে মুহাম্মদ মঈনুলসহ তাঁর সঙ্গী শিবির কর্মীদের। এতে ঘটনাস্থলেই শাহাদাত বরণ করেন মুহাম্মদ মঈনুল ইসলাম।

 

আমরা মহান আল্লাহ তা’য়ালার কাছে শহীদের পিতার জন্য দোয়া করছি আল্লাহ তা’য়ালা যেন তাঁকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসীব করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনকে ধৈর্য ধারণ করার তাওফিক দান করেন।