আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সিলেট থেকে ২৩২ যাত্রী নিয়ে লন্ডন গেল বিমান

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:সিলেট- লন্ডন রুটে সরাসরি ফ্লাইট চালু করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।আজ রবিবার (৪ অক্টোবর) সকালে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই ফ্লাইট উদ্বোধন করেন।সপ্তাহের প্রতি বুধবার এই ফ্লাইট পরিচালিত হবে।

 

উদ্বোধনী ফ্লাইটটি বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে ২৩২ জন যাত্রী নিয়ে লন্ডনের উদ্দেশে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেন, হজরত শাহজালাল (র.) স্মৃতি বিজড়িত পুণ্যভূমি সিলেটের অধিবাসীদের জন্য আজকের দিনটি আনন্দের।

 

আজ তাঁদের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট শুরু হয়েছে। এই সরাসরি ফ্লাইট সিলেটবাসী ও  যুক্তরাজ্যে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি ভাই-বোনদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার। প্রধানমন্ত্রীর এই উপহারের জন্য সিলেটের মানুষের পক্ষ থেকে তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।  সরাসরি এই বিমান যোগাযোগের ফলে দেশপ্রেমিক প্রবাসী ভাই-বোনদের সঙ্গে দেশের যোগাযোগ আরো দৃঢ়, সহজ ও আরামদায়ক হবে।

 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘জাতীয় পতাকাবাহী বিমানবহরে যুক্ত হয়েছে বোয়িং ৭৮৭ (ড্রিম লাইনার), ৭৭৭ ও ৭৩৭ মডেলের বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ১২ টি  উড়োজাহাজ। এই ধারা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে আমরা কানাডা কমার্শিয়াল করপোরেশন (সিসিসি) থেকে স্বল্পপাল্লার তিনটি নতুন ড্যাশ-৮ কিউ৪০০ কিনেছি। অচিরেই এই বিমানগুলো আমাদের বহরে সংযুক্ত হবে।’

 

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক এবং অভ্যন্তরীণ অপারেশনের পরিধি এবং ব্যাপ্তি ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করা হচ্ছে। নতুন গন্তব্য সংযোজন প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আকাশের পঞ্চম স্বাধীনতা নিশ্চিত করে আমরা বিমান চলাচল চুক্তি সম্পাদন করেছি।

 

এর ফলে বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের যেকোন শহরে, যেকোনো সংখ্যক বিমান চলাচল করতে পারবে।’ঢাকা-নিউইয়র্ক সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষেত্রে এটি একটি বড় অগ্রগতি উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ফ্লাইট অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের নির্ধারিত ক্যাটাগরি-১ অর্জনের কাজেও সন্তোষজনক অগ্রগতি হয়েছে।

 

কভিড-১৯ এর কারণে এফ এ এ কর্তৃপক্ষ সরোজমিনে পরিদর্শন কাজ সম্পন্ন করতে না পারায় তা অনলাইনে সম্পাদন করবে বলে তারা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে আলোচনা চলছে। এই পরিদর্শন কাজ সম্পন্ন হলেই আমরা ঢাকা-নিউইয়র্ক ফ্লাইট চালু করতে পারব বলে আশাবাদী। এছাড়া ঢাকা থেকে কানাডার টরেন্টোতে এবং জাপানের নারিতায় সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। এ ব্যাপারে যথেষ্ট অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। খুব দ্রুতই আমরা এই দুই দেশে সরাসরি বিমান পরিচালনা শুরু করতে পারব।

 

মাহবুব আলী বলেন,  সরকার জাতীয় প্রতিষ্ঠান বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে সত্যিকার অর্থে বিশ্বমানের একটি এয়ারলাইন্স হিসেবে গড়ে তুলতে বদ্ধ পরিকর। প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক ইচ্ছা, ও দূরদর্শী নেতৃত্বের স্পর্শে দ্রুত বিমান ও এভিয়েশন খাতের চিত্র বদলে যাচ্ছে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিমানের যাত্রীসেবা এখন আগের যে কোনো সময়ের তুলনায় উন্নত ও আন্তরিক।

 

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালনা পর্ষদ চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মোকাব্বির হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি মাসুদ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।