আজ ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ইউপি উপনির্বাচনে ৩ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার করেছে আ.লীগ

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) উপনির্বাচনে তিন বিদ্রোহী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে বহিষ্কার করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। তবে ওই তিন প্রার্থী আওয়ামী লীগের কোনো পদে জড়িত নয় বলে জানান। তাঁদের বহিষ্কার করা নিয়ে তাঁরা বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

 

গতকাল মঙ্গলবার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল স্বাক্ষরিত চিঠি ঈশ্বরগঞ্জে পৌঁছালেও তিন প্রার্থীর হাতে তা পৌঁছেনি বলে জানা গেছে।

 

চিঠি দেখে জানা যায়, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মোয়াজ্জেম হোসেন স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বহিষ্কৃতদের আওয়ামী লীগের ‘সাধারণ সদস্য’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তাঁরা হচ্ছেন- মো. জসীম উদ্দিন, মিজানুর রহমান ও আবুল কালাম।

 

স্থানীয় সূত্র জানায়, ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন গত ১৬ আগস্ট মারা যান। তাঁর মৃত্যুতে চেয়ারম্যানের পদটি শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। আগামী ২০ অক্টোবর এই ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীরা নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে জমজমাট প্রচার চালাচ্ছেন। এর মধ্যেই বহিষ্কারের ঘোষণা এল।

 

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মো. জুবের আলম রূপক দলীয় প্রতীক নৌকা ও বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মো. আমিনুল ইসলাম খান মনি ও অন্য প্রার্থীরা স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য বরাদ্দ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

 

বিদ্রোহী বলে স্বীকৃত তিন প্রার্থীর একজন মো. জসিম উদ্দিন বলেন, আমি তো কোনো দলই করি না। আমারে কে বহিষ্কার করল। যাঁরা এ কাজ করেছে তাঁদের মাথা খারাপ হয়েছে। আরেক প্রার্থী আবুল কালাম বলেন, আমি তো আঠারবাড়ি আওয়ামী লীগের কিছুই না।

 

আমি কেমনে বহিষ্কার হইলাম। অন্যদিকে মিজানুর রহমান মিজান বলেন, নেতারা নিজেরা নিজেদের জানান দিতে এ ধরনের কর্ম করছে। আমি তো আওয়ামী লীগের কেউ না। আমি নির্বাচনে আছি থাকব।

 

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল জানান, তাঁরা যদি আওয়ামী লীগ নাই করবেন তাহলে নৌকা প্রতীক চাইলেন কিভাবে।