আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

করোনা মহামারী নিয়ে আগেই ভবিষ্যৎ বাণী করেছিলেন বাবা ভঙ্গা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: বর্তমান বিশ্বে তাণ্ডব চালাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এই ভাইরাস সারাবিশ্বে এমন বিপর্যয় ঘটাবে তা আগে থেকে জানতো কেউ? বাবা ভঙ্গা নামে বুলগেরিয়ার এক অন্ধ সাধু অনেকদিন আগেই নাকি করোনাভাইরাস সম্পর্কে সতর্ক করেছিলেন।

 

এর আগেও একাধিক দেশে, ধর্মগ্রন্থে, সাহিত্যে, সিনেমায় করোনাভাইরাসের কথা আছে বলে অনেকেই দাবি করেছিলেন। তবে বাবা ভঙ্গার একজন ভক্ত দাবি করেছেন, ১৯৯৬ সালে ৮৪ বছর বয়সে ওই সাধুর মৃত্যুর আগে তিনি নাকি করোনা মহামারির কথা বলে গেছেন। যুক্তরাজ্যভিত্তিক এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

১৯৯০ সালের দিকে বাবা ভঙ্গার সঙ্গে দেখা করেছিলেন নেশকা স্টেফানোভা রোবেভা (৭৩)। বাবা ভঙ্গা মারা যাবার কিছুদিন আগেই করোনা সম্পর্কে কথা বলেছিলেন। ওই অন্ধ সাধু বলেছিলেন, সারা পৃথিবী জুড়ে একটা সময়ের পর ছড়িয়ে পড়বে করোনাভাইরাস।

 

তিনি সতর্ক করেছিলেন যে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অসংখ্য মানুষের মৃত্যু হবে। পৃথিবীর এমন কোন দেশ নেই যেখানকার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবেন না। তিনি বলেছিলেন, এর ফলে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু হবে। কিন্তু সে সময় এই বিষয়ে কিছুই বুঝতে পারেননি রোবেভা। কারণ বাবা ভঙ্গা করোনাকে ভিন্ন নামে ব্যবহার করেছিলেন।

 

রোবেভা সম্প্রতি এক টুইট বার্তায় দাবি করেছেন যে, আমেরিকার ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট অজানা রোগে মারা যাবেন একথাও বলেছিলেন বাবা ভঙ্গা। যদিও ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনায় আক্রান্ত হলেও এর মধ্যেই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন।

 

বুলগেরিয়ার এই অন্ধ সাধু জানিয়েছিলেন যে, মহামারিতে পৃথিবী ঢেকে যেতে চলেছে আর কয়েক বছরের মধ্যেই। কিন্তু যখন করোনাভাইরাস প্রথম ছড়ায় তখন রোবেভা মনে করেছিলেন যে এটি একটি চীনা ফ্লু এবং সহজেই এটি পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবে। কিন্তু পরবর্তীকালে দেখা যায় করোনাভাইরাস সারা পৃথিবীকে গ্রাস করে ফেলেছে।

 

ওই অন্ধ সাধুর বক্তব্য নতুন করে মনে পড়ে যায় রোবেভার। তার কথা অক্ষরে অক্ষরে ফলে গেছে। তবে আমেরিকার প্রেসিডেন্টকে নিয়ে তিনি যা বলেছিলেন, সেটি এখনও পর্যন্ত মেলেনি। কেউ কেউ দাবি করেন, বাবা ভঙ্গা বলেছিলেন, আমেরিকার ৪৫ প্রেসিডেন্ট কঠিন রোগে আক্রান্ত হবেন। সে কথা ফলে গিয়েছে। কারণ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

 

এতো বছর আগে একজন সাধু কিভাবে করোনা সম্পর্কে সতর্ক করেছেন তা নিয়ে অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। বাবা ভঙ্গার অনুসারীরা মনে করেন তিনি ছিলেন একজন শক্তিশালী অধ্যাত্মিক গুরু। তাদের দাবি, বাবা ভঙ্গা মৃতদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারতেন এমনকি ভবিষ্যত সম্পর্কেও অনেক কিছু সঠিকভাবে বলে দিতে পারতেন।