আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাজশাহীতে দুর্গাপূজায় সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে পুলিশ: আরএমপি কমিশনার

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:রাজশাহী মহানগরী এলাকায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজায় পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক।তিনি বলেন, ‘এ উৎসবে আরএমপি’র পক্ষ থেকে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। ইতোমধ্যে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে।’

 

আজ (১৪ অক্টোবর) রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্স পিওএম কনফারেন্স রুমে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষে আইন শৃংখলা সংক্রান্ত এক বিশেষ সভায় আরএমপি কমিশনার এই কথা বলেন।

 

সভায় কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন উদযাপন উপলক্ষে রাজশাহী মহানগরী এলাকার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি যেন স্বাভাবিক থাকে ও প্রতিমা প্রস্তুত এবং পূজা চলাকালীন নিরাপত্তার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এতে হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ আইন শৃংখলা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করেন।

 

আবু কালাম সিদ্দিক গুরুত্বপূর্ণ পূজামন্ডপগুলোতে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান।পূজামন্ডপগুলোতে পুরুষ ও নারীদের জন্য পৃথক প্রবেশ ও নির্গমণ লাইন রাখার এবং পূজা মন্ডপে পুরুষ ও মহিলা আলাদা আলাদা স্বেচ্ছাসেবক রাখার উপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

 

পূজা মন্ডপের প্রবেশ গেইটে মেটাল ডিটেক্টর রাখার জন্যও পূজা কমিটিকে পরামর্শ প্রদান করেন আরএমপি কমিশনার।তিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণকে পূজা কমিটির সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখার এবং দর্শনার্থীরা নির্বিঘ্নে যাতে পূজামন্ডপ দর্শণ করতে পারে সেজন্য ট্রাফিক বিভাগকে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা জোরদার করার নির্দেশ প্রদান করেন।

 

প্রতিটি পূজামন্ডপ কমিটিকে সকল ধর্মের সমন্বয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি কমিটি গঠনেরও আহ্বান জানান আরএমপি কমিশনার।সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আরএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মোঃ সুজায়েত ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) সালমা বেগম, উপ-পুলিশ কশিনার (সদর) মোঃ রশীদুল হাসান,

 

উপ-পুলিশ কমিশনার (বোয়ালিয়া) মোঃ  সাজিদ হোসেন, উপ-পুলিশ কমিশনার (মতিহার) বিভূতি ভূষন বানার্জী, উপ-পুলিশ কমিশনার (শাহমখদুম) মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, উপ-পুলিশ কমিশনার (কাশিয়াডাঙ্গা) মোঃ আরেফিন জুয়েল, উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা শাখা) আবু আহাম্মদ আল মামুন,

 

উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) অনির্বান চাকমা ও উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাবৃন্দসহ সকল থানার অফিসার ইনচার্জ এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটি সিনিয়র সহ সভাপতি জনাব অনিল কুমার সরকার, বাগমারা উপজেলা চেয়ারমান তপন কুমার সেন, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টৈর ড. সুজিত সরকার, হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রীষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের অলোক কুমার দাস, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, রাজশাহীর এ্যাডভোকেট শরৎচন্দ্র সরকার, শ্যামল কুমার ঘোষ, শ্রী সমর কুমার সাহা ও  শ্রী কানাই কুমার সাহা।এবার রাজশাহী মহানগরী এলাকায় পূজামন্ডপের সংখ্যা ৮৭ টি।