আজ ৩রা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আসামী তুলে আনার সময় হামলার শিকার পুলিশ সদস্যরা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: বানিয়াচং উপজেলায় পুলিশ সদস্যদের মারধর করে জিআর মামলার আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় ইউনিয়ন একজন সদস্যও এই হামলায় অংশ নেন।

 

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মাঝে বানিয়াচং থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মোহাম্মদ তোহাকে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দুইটি জিআর মামলার আসামী ও দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে বুলবুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করতে কয়েকজন পুলিশ ওই গ্রামে যায়।

 

এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসার পথে মক্রমপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শেখ মমিন মিয়া ও আসামির ভাই বদরুল মিয়াসহ একদল লোক পুলিশের ওপর হামলা করে। তখন হামলাকারীরা পুলিশ সদস্যদের মারধর করে আসামি নজরুলকে ছিনিয়ে নেয়।

 

হামলায় বানিয়াচং থানার এএসআই মোহাম্মদ তোহা, এএসআই সোহেল ও কনস্টেবল হাতিমুর রহমান আঘাতপ্রাপ্ত হান। এদের মাঝে এএসআই তোহাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 

হাসপাতালে আসা পুলিশ সদস্যরা জানান, এএসআই তোহার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে পরবর্তী অবস্থা জানানো যাবে।

 

বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মো. সেলিম মিয়া জানান, আসামী গ্রেপ্তারের পর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শেখ মমিন মিয়া ও বদরুলসহ লোকজন পুলিশকে মারধর করেছে।

 

তারা আসামি নজরুলকে ছিনিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।রাত ১০টায় বানিয়াচং থানা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।