আজ ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

যশোরের মনিরামপুরে ২ যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: যশোরের মণিরামপুরে দুই যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে উপজেলার ঢাকুরিয়া ইউনিয়নের উত্তরপাড়া গ্রামের ফাঁকা রাস্তার উপরে ঘটনাটি ঘটে।

নিহতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার বসুন্দিয়া ইউনিয়নের জয়ন্তা গ্রামের প্রবাসী আক্তার গাজীর ছেলে বাদল গাজী (২২) ও নিকমল মোল্যার ছেলে আহাদ মোল্যা (২২)।

নিহতরা দুইজন প্রতিবেশী চাচাত ভাই। তাদের মধ্যে বাদল রূপদিয়া বাজারে ইন্টারনেট সংযোগের কাজ করতেন। আর আহাদ পেশায় কৃষক। এই ঘটনার খবর পেয়ে রাত নয়টার দিকে থানা পুলিশ লাশ হেফাজতে নিয়েছে। ঘটনাস্থল তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও দুটি মোবাইল ফোন পড়ে থাকতে দেখা গেছে। তবে কী কারণে কারা তাদের হত্যা করেছে তা জানা যায়নি।

ঘটনাস্থলের পাশের বাড়ির বাসিন্দা নাসির বিশ্বাস বলেন, ‘সন্ধ্যার কিছুসময় পরে আমি বাড়ির উঠানে বসেছিলাম। তখন রক্তাক্ত একজন দৌঁড়ে এসে বলেন চাচা আমারে বাঁচান। এই বলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। তখন আমরা বাড়ির সবাই চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে নিয়ে ভ্যানে করে হাসপাতালে রওয়ানা হই। পরে সদর উপজেলার চাউলিয়া গেটে গেলে তার মৃত্যু হয়।’

তিনি আরো বলেন, লোকজন এগিয়ে গিয়ে দেখেন আর একজনের লাশ রাস্তায় (ঘটনাস্থলে) পড়ে আছে। ঘটনাস্থলে পড়ে থাকা লাশটি বাদলের। আর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত যুবকের নাম আসাদ।

নিহতদের স্বজনরা জানান, বাদল কয়দিন আগে নতুন মোটরসাইকেল কেনে। ইন্টারনেট ব্যবসার পাশাপাশি তিনি ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাতেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পরে বাদল ও আসাদ বসুন্দিয়া জয়ন্তা বাজারে কেরামবোর্ড খেলছিলেন। তখন বাদলের মোবাইলে কল আসলে তারা দু’জন মোটরসাইকেলে করে চলে আসেন। স্থানীয়দের ধারণা, মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তাদের ডেকে এনে খুন করে দুর্বৃত্তরা। দ্রুত ঘটনাটি আশপাশের লোক টের পাওয়ায় তারা মোটরসাইকেল রাস্তার উপর ফেলে পালিয়ে যায়।

মণিরামপুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) দেবাশীষ বিশ্বাস বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। লাশ দুটি ও মোটরসাইকেল উদ্ধার করে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। হত্যার কারণ জানা যায়নি।