আজ ৩রা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সপ্তাহের ব্যবধানে দাম বেড়েছে ২০০ টাকা আত্রাইয়ে দফায় দফায় বাড়ছে কাঁচা মরিচের দাম

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: গত এক সপ্তাহ ধরে নওগাঁর আত্রাইয়ের হাটসহ বিভিন্ন খুচরা বাজারে দফায় দফায় কাঁচা মরিচের দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে। বৃষ্টি ও বন্যার অজুহাত দেখিয়ে কাঁচা মরিচ এখন বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ২৫০ টাকা। অথচ সপ্তাহ খানেক আগে এই কাঁচা মরিচ প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকা থেকে ৬০ টাকায়।

সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি কেজি কাঁচা মরিচের দাম ২০০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে যাওয়ার পেছনে ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট কাজ করছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্রেতারা।

শুক্রবার দিনব্যাপী উপজেলার বিভিন্ন হাটের কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, সপ্তাহখানেক ধরে বাজারে দফায় দফায় দাম বেড়ে যেন কাঁচা মরিচের ঝালে ক্রেতাদের চোখে পানি এসে গেছে। হঠাৎ করে কাঁচা মরিচের দাম এতে বেশি বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতাদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের ক্রেতা ওমর ফারুক জানান, গত মঙ্গলবার হাটে এই কাঁচা মরিচ কিনেছি প্রতিকেজি ৬০ টাকা, সেই মরিচ এখন বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ২৫০ টাকা। এত দাম বাড়ার কারন কি জানতে চাইলে তিনি অধিক মুনাফালোভি ব্যবসায়ীদের কারসাজি হতে পারে বলে অভিযোগ করে বলেন, কাঁচা মরিচের দামে যেন আগুন লেগেছে।

অন্যদিকে বিক্রেতারা বলছেন, বর্ষা মৌসুমের কারণে দেশের বিভিন্ন এলাকায় আগাম বন্যা হওয়ায় কাঁচা মরিচের ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় বাজারে সরবরাহ কমে গেছে। এখন বিভিন্ন এলাকা থেকে যে পরিমাণ কাঁচা মরিচ বাজারে আসছে তা চাহিদার তুলনায় অনেক কম। চাহিদা ও সরবরাহে ঘাটতির কারণে কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে।

তারা আরও বলেন, পাইকারী বাজারে কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে। তাই তারাও বেশি দামে বিক্রি করছেন। এখানে তাদের কিছু করার নেই।

তবে ক্রেতারা বলেছেন, মৌসুমের শেষে দাম একটু বাড়তে পারে। তাই বলে মৌসুমের ৫০/৬০ টাকার কাঁচা মরিচ এখনই ২৫০ টাকা হবে! তাহলে সারাবছর কাঁচা মরিচের দাম কত হবে?
বিক্রেতারা সিন্ডিকেট করে কাঁচা মরিচের দাম বাড়িয়েছেন
অভিযোগ করে তারা আরও বলেন, প্রতিটি সবজি বিক্রেতার দোকানেই যথেষ্ট পরিমাণ কাঁচা মরিচের মজুদ আছে।

এমনিতেই ৬০ টাকা কেজির নিচে কোনো সবজি মেলে না। তার ওপর কাঁচা মরিচের দাম এতো বেশি।