আজ ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

নিরাপত্তার অভাব বোধ করছে নির্যাতিতা দলিত তরুণীর পরিবার

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: ভারতের উত্তরপ্রদেশের হাথরসের গ্রামে ‘নিরাপত্তার অভাব’ বোধ করছে নির্যাতিতা দলিত তরুণীর পরিবার। সে কারণে গ্রামের বাড়ি ছেড়ে দিল্লি গিয়ে আশ্রয় নিতে চায় পরিবারটি।

দিল্লিতে থেকেই মেয়ের জন্য ন্যায়বিচার আদায়ের লড়াই চালিয়ে যেতে চান ওই পরিবারের সদস্যরা।

জানা গেছে, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকে চারপাশ থেকে উচ্চবর্ণের লোকজনদের শাসানি শুনতে হয়েছে পরিবারের নদস্যদের। বিজেপির একাধিক নেতাও পরিবারটিকে দোষারোপ করেছে এবং অভিযুক্তদের হয়ে সাফাই গেয়েছেন।

বয়ান বদলাতে পুলিশ-প্রশাসনের চাপও সহ্য করতে হয়েছে তাদের। এসব কারণে ভীত-সন্ত্রস্ত দলিত পরিবারটি হাথরসের গ্রামে আর থাকার সাহস পাচ্ছে না।

১৯ বছর বয়সী ওই তরুণীর ভাই জানান, তারা সপরিবার দিল্লিতে চলে গিয়ে সেখান থেকেই ন্যায়বিচার আদায়ে লড়াই চালিয়ে যেতে চান।

তিনি বলেন, নিরাপত্তার কারণে আমরা হাথরসে আর থাকতে চাই না। তাদের পরিবারের আইনজীবী সীমা কুশওয়াও এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনৌ বেঞ্চে জানিয়েছেন, ধর্ষণ-খুনের মামলাটি উত্তরপ্রদেশের বাইরে সরানোর অনুমতি দেওয়া হোক। নিরাপত্তা নিয়ে ভয় পাচ্ছে পরিবারটি। মামলা চলাকালীন হাথরসের নির্যাতিতার পরিবারের জন্য নিরাপত্তারক্ষী দেওয়ার আবেদনও জানান তাদের আইনজীবী।

এদিকে, পরিবারটির নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এসডিএম অঞ্জলি গাঙ্গওয়ার গতকাল শনিবার হাথরসের ওই পরিবারের সঙ্গে দেভা করেছেন। নিরাপত্তা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের তিনি আশ্বস্ত করে এসেছেন। সেই সঙ্গে সাপ্তাহিক রেশন ও পশুখাদ্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও তিনি দিয়েছেন।

মৃত তরুণীর বাবা জানান, তিনি চাষের জমিতে গিয়ে কাজ করতে চান। এসডিএম সে অনুমতিও দিয়েছেন। পুলিশ পাহারায় তিনি জমিতে যাবেন।

সূত্র : এই সময়