আজ ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বিকৃত রুচির এক বাবা!

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার এক গ্রামে মাদকাসক্ত পিতার বিরুদ্ধে দুই কিশোরী কন্যাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যায় কিশোরীদের মা থানায় এসে বাদী হয়ে মাদকাসক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগ এনে, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ মামলা দায়েরের পরপরই অভিযুক্ত মো. আবুবক্কর ছিদ্দিককে আটক করেছে। দেবীদ্বার থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ইকরাম হোসেন জানান, মেয়েকে উত্যক্ত করার ঘটনায় তার মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে মো. আবুবক্কর ছিদ্দিককে আটক করা হয়েছে।

ওই কিশোরীদের মা জানান, তার স্বামী রাজমিস্ত্রী ঠিকাদার মো. আবুবক্কর ছিদ্দিক (৪৭) প্রায় এক বছর আগে থেকে বড় মেয়ে ও নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া অপর মেয়েকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করতে থাকেন। তিনি বলেন, এ সমস্ত অনৈতিক ঘটনায় বাঁধা দিতে গেলে লাঠি দা নিয়ে আমাদেরকে আক্রমণের চেষ্টা করে। তার কথার অবাধ্য হলে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেন। আমাকে ও আমার শাশুড়িসহ দুই কন্যাকে বহিরাগত সন্ত্রাসী এনে শ্লীলতাহানিসহ হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে।

তিনি বলেন, তার এহেন কর্মকাণ্ডে রাগে ক্ষোভে কলেজের দ্বিতীয়বর্ষে পড়ুয়া আমার পুত্র (১৮) বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায় এবং দাউদকান্দির একটি মোরগের ফার্মে চাকরি নেয়। তার বাবা জানার পর এমন কাজ আর করবে না; এই শর্তে বাড়িতে ফিরিয়ে আনেন। কিন্তু গত ১১ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত অনুমান ২টায় আমার স্বামী নেশাগ্রস্ত হয়ে আমার দুই কন্যার রুমের দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করেন এবং তাদের ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। আমি তাদের রক্ষা করি। পরদিন আমি বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেই। ওখানেও আমাদের জায়গা না দিতে সন্ত্রাসী পাঠিয়ে আমার ভাইকে হুমকি দেন।

তিনি আরো বলেন, ওই ঘটনায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সহযোগিতা চাইলে তাদের কথাও অমান্য করে একই আচরণ করতে থাকেন। অবশেষে আমি পুলিশের আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছি।

দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মেজবাহ উদ্দিন জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে আসামিকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পরেই বিস্তারিত জানা যাবে।