আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ছেলে গ্রেফতারের সময় সস্ত্রীক চিকিৎসকের কাছে ছিলেন হাজী সেলিম

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় ছেলে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে চলে গেছেন। তার বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে নিষিদ্ধ ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কিং সিস্টেম, বিদেশি মদ, অস্ত্র, চাইনিজ কুড়াল প্রভৃতি সরঞ্জাম। এত কিছুর মাঝেও দেখা যায়নি ঢাকা-৭ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য (এমপি) হাজী সেলিমকে।

সোমবার দুপুর থেকে পুরান ঢাকার সোয়ারিঘাটের দেবদাস লেনে হাজী সেলিমের বাড়ি ঘেরাও করে অভিযান করে র‌্যাব। তবে তখন বাড়িতে হাজী সেলিম ছিলেন না বলে র‌্যাব জানায়। সোমবার (২৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ তার অবস্থান বিষয়ে কিছু বলেননি।

তবে এর আগে দুপুরে আশিক বিল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন, হাজী সেলিম বাড়িতে নেই। অভিযানের আগেই তিনি তার স্ত্রীসহ ডাক্তারখানায় গেছেন বলে জানা গেছে।

পরে ওই ভবন থেকে লাইসেন্সহীন বিদেশি পিস্তল, গুলি, এয়ারগান, ৩৭টি ওয়াকিটকি, একটি হাতকড়া এবং বিদেশি মদ ও বিয়ার জব্দ করার কথা জানিয়েছেন র‌্যাব কর্মকর্তারা।

নৌবাহিনী কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় মামলা হওয়ার পর সোমবার দুপুরে সোয়ারি ঘাট এলাকায় সাংসদ হাজী সেলিমের বাড়ি ঘেরাও করে অভিযান চালায় র‌্যাব।