আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

নয়া ধামাকা নিয়ে ফিরছেন অভিনেত্রী কুসুম সিকদার

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:  দির্ঘদিন পর কবি হয়ে প্রকাশ্যে আসছেন টিভি পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী কুসুম শিকদার। তিনি নাটক বা ছবিতে নয় বরং এবার তিনি প্রকাশ্যে আসছেন নিজের লেখা কবিতা নিয়ে।

 

সম্প্রতি কুসুম একটি কবিতা লিখেছেন। ‘জলকন্যা’ শিরোনামের সেই কবিতার ভিডিওতে মডেল হিসেবে দেখা গেছে তাকে। মূলত কবিতার মাধ্যমে দর্শকদের সামনে এলেন তিনি।

 

পাশাপাশি কবিতাটি তার নিজেরই লেখা। আবৃত্তিও করেছেন কুসুম।কুসুম বলেন, আমাদের দেশে এভাবে আগে কেউ কবিতার মডেল হয়েছে কিনা আমার জানা নেই। আমি চেয়েছি নতুন কিছু করতে।

 

যারা কবিতাটি শুনেছেন এবং দেখেছেন তারা প্রশংসা করেছেন। এটি আমার জন্য আনন্দের। কোনো নাটক-চলচ্চিত্রে অভিনয় না করে কবিতায় কেন কুসুম? তিনি বলেন, অনেক দিন থেকেই লেখালেখি করছি।

 

সত্যি বলতে, আমি এখন লেখালেখিতেই ডুবে আছি। কবিতাটি প্রকাশের জন্য আগে কোনো পরিকল্পনা ছিল না। হঠাৎ করেই এর আয়োজন করেছি।২০১৮ সালে কুসুম সর্বশেষ হানিফ সংকেতের ‘শেষ-অশেষ’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয় করেছেন।

 

বড় পর্দায় শেষ ‘শঙ্খচিল’ ছবিতে দেখা গেছে তাকে। গৌতম ঘোষ পরিচালিত ইন্দো-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় এই ছবি নির্মিত হয়েছে। এতে তিনি অভিনয় করেন কলকাতার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বিপরীতে।

 

একই বছর তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপরেও অভিনয় থেকে দূরে সরে আছেন কুসুম।কারণ কী? উত্তরে তিনি বলেন, অভিনয় না করার অবশ্যই কিছু কারণ আছে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার পর আমার অভিনয়ে আরো বেশি মনোযোগী হওয়ার কথা ছিল।

 

অথচ অভিনয় থেকেই দূরে আছি। এই দূরে থাকার অন্যতম কারণ হলো ব্যক্তিগত। এর বেশি বলতে চাই না। অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও শোবিজের খবর রাখেন বলে জানান তিনি।তিনি বলেন, অনেক আগেই চলচ্চিত্র নির্মাণের সংখ্যা কমেছে।

 

এখন নাটকের বাজার বড় হয়েছে। কিন্তু এখানে প্রচুর নাটক নির্মাণ হলেও শৈল্পিক কাজের সংখ্যা কম। আগে ভালো কাজের সংখ্যা বেশি ছিল। বাণিজ্যিক ভাবে হয়তো নাটকগুলো সফল হচ্ছে এটি সত্যি। তবে ১০ বছর পরে দর্শকরা মনে রাখবে এমন নাটকের সংখ্যা তেমন নেই।