আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

চলমান দ্বন্দ্বে ম্যাক্রোঁকে সমর্থন করলেন আমিরাতের প্রতিমন্ত্রী

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: পশ্চিমা সমাজ ব্যবস্থার সঙ্গে মুসলমানদের সম্পর্ক সংহতকরণের প্রয়োজনীতা তুলে ধরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ যে আহ্বান জানিয়েছেন তা গ্রহণ করার জন্য মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের একজন প্রতিমন্ত্রী।

সোমবার (০২ নভেম্বর) জার্মানির একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকারে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আনওয়ার গারঘ্যাশ বলেন, ম্যাক্রোঁ তার ভাষণে কি বলেছেন মুসলমানদের এটি ভালো করে শোনা উচিৎ। তিনি পশ্চিমাবিশ্ব থেকে মুসলমানদের আলাদা করার কথা বলেননি। তিনি সম্পূর্ণ সঠিক বলেছেন।

ম্যাক্রোঁর বক্তব্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট পশ্চিমা সমাজের সঙ্গে মুসলমানদের সম্পর্ক আরো সুসংহত করার কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, উগ্রাবাদ, সামাজিক প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলায় স্ব স্ব ক্ষেত্রে সফলতা অর্জনের জন্য নিজস্ব উপায় খোঁজার অধিকার ফ্রান্সের রয়েছে।

ফ্রান্সের মুসলমানদের দেশটি থেকে বের করে দেয়ার যে অভিযোগ ফরাসি প্রেসিডেন্টর বিরুদ্ধে উঠেছে তা প্রত্যাখ্যান করেন আমিরাতের প্রতিমন্ত্রী।

ফরাসি মুসলমানরা বিচ্ছিন্নতা বাদী, ইসলাম বিশ্বে সংকট তৈরি করছে, মুসলিম বিচ্ছিন্নতা মোকাবিলায় কঠোর আইন প্রণয়নের প্রতিশ্রুতি এবং মহানবী মুহাম্মদ (স.) এর ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ এবং প্রদর্শন অব্যাহত রাখার ঘোষণায় ফরাসি প্রেসিডেন্ট এবং ফ্রান্সের বিরুদ্ধে সারা মুসলিম বিশ্ব যখন ক্ষোভ, প্রতিবাদ জানাচ্ছেন তখনেই আমিরাতের উপমন্ত্রী এ মন্তব্য করলেন।

আরবসহ সারাবিশ্বের মুসলমানদের ক্ষোভ এবং ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাকের জেরে সুর কিছুটা নরম করতে বাধ্য হয়েছেন ম্যাক্রোঁ। সম্প্রতি তিনি বলেছেন, মুসলমানদের অনুভূতি তিনি বুঝতে পেরেছেন।

শনিবার তিনি বলেন, আমি তাদের অনুভূতি বুঝতে পেরেছি। তাদেরকে সম্মান করি। কিন্তু আমার অবস্থানটা এ মুহূর্তে বুঝতে হবে। আমি মানুষের অধিকার এবং শান্তি ছড়িয়ে দেয়ার কথা বলেছি। সব সময় আমি আমার দেশের মত প্রকাশের স্বাধীনতার পক্ষে। সেটা মুখের ভাষায়, লেখায় কিংবা অংকে- যেভাবেই হোক না কেন।