আজ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

হার্ভার্ডে সন্তানদের ভর্তি করাতে বিশাল অংকের ঘুষ, গ্রেপ্তার ২

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ফেন্সিং কোচ এবং মেরিল্যান্ডের এক ব্যবসায়ীকে গতকাল সোমবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘুষের বিনিময়ে দুজন শিক্ষার্থী ভর্তির ষড়যন্ত্র করার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যবসায়ী জে জ্যাক ঝাও (৬১) তার দুই সন্তানকে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করাতে বেশ কয়েক বছর ধরে দীর্ঘদিনের কোচ পিটার ব্রান্ডের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করেছিলেন। ফেডারেল কর্মকর্তারা এমনটাই জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, জে জ্যাক ঝাও তার সন্তানদের হার্ভাডে ভর্তি করাতে ১.৫ মিলিয়ন ডলারের বেশি ঘুষ দিয়েছিলেন। এর মধ্যে একটি গাড়ি ও বাড়ির জন্য অর্থ দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে ব্রান্ডের ছেলের জন্য শিক্ষা ঋণের পাশাপাশি টিউশন ফি পরিশোধও অন্তর্ভূক্ত ছিল।

ফেডারেল প্রসিকিউটরদের মতে, জ্যাক ঝাও এই সহ-ষড়যন্ত্রকারীর সঙ্গে কাজ করেছিলেন যিনি ভার্জিনিয়ায় একটি ফেন্সিং একাডেমি পরিচালনা করেন এবং এই পরিকল্পনাটি আরও এগিয়ে নিতে ফেন্সিং-সম্পর্কিত দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করেছেন।

তবে তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করে আদালতে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন ঝাও। তার আইনজীবী বিল ওয়েইনরেব ইমেইলে এক বিবৃতিতে বলেছেন, জ্যাক ঝাওয়ের সন্তানরা আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিযোগিতা করেই নিজেদের মেধার জোরেই হার্ভাডে ভর্তি হয়েছেন।

এদিকে, তার মক্কেল কোনো অপরাধ করেননি বলে জানিয়েছেন ব্র্যান্ডের অ্যাটর্নি ডগলাস এস ব্রুকস। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ওই শিক্ষার্থীরা একাডেমিক এবং ফেন্সিং তারকা। কোচ ব্র্যান্ড হার্ভার্ডে তাদের প্রবেশের ক্ষেত্রে কোনো ভুল করেনি। তিনি আদালতে সত্য প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছেন।

উল্লেখ্য, পিটার ব্রান্ডকে গত বছর বহিষ্কার করে হার্ভাড। তিনি ১৯৯৯ থেকে প্রতিষ্ঠানটির ফেন্সিং কোচ ছিলেন। আর জে জ্যাক ঝাও মেরিল্যান্ডের একটি টেলিকম কোম্পানির প্রধান নির্বাহী।