আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শত ব্যস্ততার মাঝেও সাদাসিধে জীবন যাপন করেন প্রধানমন্ত্রী

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক:একটি দেশ চালানোর মতো শত ব্যস্ততার মাঝেও কখনও কখনও সাদাসিধে আটপৌড়ে জীবন যাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। খবর ইউএনবি’র।

প্রধানমন্ত্রী সাদাসিধে সেই জীবনের দুটি ছবি  শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। যার একটিতে প্রধানমন্ত্রীকে মাছ শিকারের পর বড়শি হাতে এবং অন্যটিতে সেলাইমেশিনে কাপড় সেলাই করতে দেখা যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাথায় হ্যাট পরে গণভবনের পুকুরে বড়শি দিয়ে মাছ ধরে পারে তুলছেন এবং আরেকটিতে সেলাই মেশিনে পোশাক সেলাই করছেন এমন দৃশ্যের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে মন্তব্য করতে দেখা গেছে।

ওই ছবি দুটো নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে পোস্ট করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

ছবির ক্যাপশনে তিনি লেখেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন পরিপূর্ণ মানুষ। প্রধানমন্ত্রী সফলভাবে ১৭ কোটি বাংলাদেশির ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন। ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলিমকে আশ্রয় দিয়েছেন। এত কিছুর মাঝেও তিনি তার অবসর সময়টা রান্না, মাছ ধরা আর সেলাই করে উপভোগ করেন।’

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলমের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ থেকে মাছ শিকারের পর বড়শি হাতে মাছ ধরার আনন্দে উৎফুল্ল প্রধানমন্ত্রীর ছবিটি শেয়ার দিয়ে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘ক্যাপশন দেবার মতো বিদ্যা আমার নাই!’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ দুটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার দিয়েছেন।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রান্না করে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের পরিবারের জন্য হরেক রকমের মিষ্টি ও পিঠার সঙ্গে পোলাও-কোরমা তৈরি করে তার বনানীর বাসায় পাঠিয়েছিলেন। সে সময় প্রধানমন্ত্রীর নিজ হাতে তৈরি করা খাবার খেয়ে আপ্লুত সাকিব ও তার স্ত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তাদের অনুভূতি শেয়ার করে খাবারের ছবিও পোষ্ট করেছিলেন।

এছাড়া, ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিনে প্রতিবছর তার মা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে রান্না করে খাওয়ান।