আজ ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মধ্য মালিতে ফরাসী বিমান হামলায় ২০ গ্রামবাসী নিহতের দাবি

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:ফ্রান্স সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তারা মধ্য মালিতে বিমান হামলা চালিয়ে কয়েক ডজন বিদ্রহী যোদ্ধাকে হত্যা করেছে। তবে স্থানীয় গ্রামবাসীরা এবং একটি সংস্কৃতিক সংস্থার দাবি, হেলিকপ্টার থেকে ছোড়া গুলিতে ২০ জন বিয়ের অতিথি নিহত হয়েছেন।

বাউন্টির গ্রামের বাসীন্দারা জানান, রবিবার দিনের বেলায় একটি হেলিকপ্টার খুব নিচে দিয়ে উড়ে আসে ও গুলি চালাতে থাকে। এসময় বিয়ের জন্য জড়ো হওয়া জনতার মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয় বাসিন্দা আহমদাউ ঘানা বলেন, হামলা শুরু হলে জীবন বাঁচাতে আমরা যেদিকে পেরেছি দৌড়েছি। আরেক গ্রামবাসী ম্যাডি ডিকো যোগ করেন, হামলার তীব্রতা দেখে আমরা খুব অবাক হয়েছি। হেলিকপ্টারটি খুব নীচদিয়ে উড়ছিল। গত রবিবার মালির তাবিতাল পুলাকু নামের একটি নৃগোষ্ঠী সংস্কৃতি সংস্থাও বিমান হামলায় বিয়ের অনুষ্ঠানে কমপক্ষে ২০ বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছেন বলে জানিয়েছে।

এদিকে ফরাসী সামরিক বাহিনীর একজন মুখপাত্র কর্নেল ফ্রেডেরিক বার্বি অভিযান এবং বিয়ের অনুষ্ঠান ও হামলার মধ্যে সংযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিমান হামলার আগে সংগৃহীত তথ্যের সঙ্গে এ জাতীয় অভিযোগের কোনো মিল নেই। তিনি বলেন, বেশ কয়েকদিনের গোয়েন্দা তথ্য অনুসরণ করে এই অভিযান চালানো হয়েছে। গোয়েন্দা তথ্যে কিছু সন্দেহভাজন লোকদের জড়ো হওয়ার কথা ছিল। ফরাসী সামরিক বাহিনী নিশ্চিত তথ্য পেয়েই এই সন্ত্রাসী সশস্ত্র গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান সফলভাবে শেষ করতে পেরেছে বলেও জানান তিনি।

মালিতে জাতিসংঘ মিশনের মানবাধিকার বিভাগের প্রধান গুইলিউম ন্যাগফা এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তবে তিনি বিস্তারিত কিছু জানাননি। এদিকে মালিয়ান সরকার থেকে তাৎক্ষণিকভাবে এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

মালিয়ার রাজধানী বামকো থেকে ৬০০ কিলোমিটার দূরে মোপটি অঞ্চলে এই গ্রামটি অবস্থিত। এ গ্রামে সশস্ত্র বাহিনীগুলির উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি রয়েছে।