1. [email protected] : bijoy : bijoy Book
  2. [email protected] : News Room : News Room
  3. [email protected] : news uploader : news uploader
  4. [email protected] : prothombarta :
এক নজরে ২৬ কোম্পানির ইপিএস
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০৭ দিন

এক নজরে ২৬ কোম্পানির ইপিএস

  • পোষ্ট হয়েছে : শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২৩

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: গেলো সপ্তাহে পুজিবাজারে তালিকাভুক্ত ২৬ কোম্পানি চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

এই ২৬ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে ওয়ালটন হাইটেক, এমবি ফার্মা, বিবিএস ক্যাবলস, জাহিন স্পিনিং, বিবিএস, আইসিবি, ইউনিক হোটেল,এডিএন টেলিকম, আজিজ পাইপস, তিতাস গ্যাস, শ্যামপুর সুগার, নাহী অ্যালুমিনিয়াম, সিনোবাংলা, ন্যাশনাল পলিমার, ক্রাউন সিমেন্ট, গ্লোবাল হেভি কেমিক্যালস, বার্জার পেইন্টস , রানার অটোমোবাইল, উসমানিয়া গ্লাস, নাভানা ফার্মাসিটিক্যালস, সিমটেক্স, ম্যারিকো, ইস্টার্ন হাউজিং, ফার্মা এইডস এবং কে অ্যান্ড কিউ লিমিটেড।

নাহী অ্যালুমিনিয়াম: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১২ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৬১ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৩০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ১২ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৫৬ পয়সা।

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬১ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৯ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৪ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৫৮ পয়সা।

ন্যাশনাল পলিমার: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৭১ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৮ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ২৭ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৮ টাকা ৭০ পয়সা।

ওয়ালটন হাই-টেক: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৫ টাকা ৪৫ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১৪ টাকা ৭৩ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি))ি)বি হয়েছে ২১৬ টাকা ৭৭ পয়সা।

এমবি ফার্মা: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৪ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৩৪ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ২১ টাকা ৫৬ পয়সা।

বিবিএস ক্যাবলস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ১৪ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২ টাকা ৪০ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৩২ টাকা ৭৬ পয়সা।

জাহিন স্পিনিং: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে লোকসান ছিল ২০ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৪৪ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৫ টাকা ২ পয়সা।

বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৯৩ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৯৬ পয়সা।

 

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ১৭ টাকা ৪০ পয়সা।

আইসিবি: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৯৮ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ৬৬ পয়সা পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৫২ টাকা ৯৮ পয়সা।

ইউনিক হোটেল: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৭ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৫২ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৭ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৮৪ টাকা ৭৯ পয়সা।

বার্জার পেইন্টস: তৃতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৪ টাকা ৭৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১৭ টাকা ৫২ পয়সা।

এদিকে, তিন প্রান্তিক তথা ৯ মাসে (এপ্রিল’২২- ডিসেম্বর’২২) শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪৪ টাকা ১৬ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ৪৩ টাকা ১৮ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৫৮ টাকা ৯১ পয়সা।

রানার অটোমোবাইল: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২ টাকা ০৮ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৯৬ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৩ টাকা ১৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ৪৯ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৬২ টাকা ৬১ পয়সা।

উসমানিয়া গ্লাস: দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১ টাকা ১৯ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে লোকসান ছিল ১ টাকা ৫৭ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৮১ টাকা ৯৮ পয়সা।

নাভানা ফার্মাসিটিক্যালস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৭৮ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৫৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ৫৪ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৩৯ টাকা ৫৬ পয়সা।

সিমটেক্সে: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২১ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৬ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৪৩ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২২ টাকা ৪ পয়সা।

ম্যারিকো: তৃতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩০ টাকা ৯৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২৭ টাকা ৩৫ পয়সা।

তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (এপ্রিল-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৪ টাকা ৪৫ পয়সা, গত বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৯০ টাকা ৮ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৮৪ টাকা ৮১ পয়সা। এর আগের বছর একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ৮২ টাকা ৪ পয়সা।

ইস্টার্ন হাউজিং: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৯ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১ টাকা ৮৯ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ টাকা ১৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২ টাকা ৬৪ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৭৫ টাকা ৮৪ পয়সা।

ফার্মা এইডস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৭৬ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৫ টাকা ৫৩ পয়সা।

এদিকে, দুই প্রান্তিকে তথা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ২৩ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১০ টাকা ৬৯ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৯৪ টাকা ৭৩ পয়সা।

কে অ্যান্ড কিউ: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১১ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ১১ পয়সা।

এদিকে, দুই প্রান্তিকে তথা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২৬ পয়সা। আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১৬ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ৭৪ টাকা ১৭ পয়সা।

এডিএন টেলিকম: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৬০ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২ টাকা ১ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ১ টাকা ২৩ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে ৯৭ পয়সা। এর আগের বছর একই সময়ে ছিল মাইনাস ৪৪ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ২৮ টাকা ৬০ পয়সা।

আজিজ পাইপস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৯৮ পয়সা , গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৪ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২ টাকা ১৪ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ১ টাকা ৯৯ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে মাইনাস ১৩ পয়সা। এর আগের বছর একই সময়ে ছিল মাইনাস ৬৮ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য মাইনাস ২১ টাকা ৭২ পয়সা।

তিতাস গ্যাস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৯৩ পয়সা , গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৭৩ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ২৬ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ১ টাকা ৪৪ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে ৬ টাকা ১৯ পয়সা। এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ৪ টাকা ২৪ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৭৪ টাকা ৪৩ পয়সা। এর আগের বছর ছিল ৭৪ টাকা ১৬ পয়সা।

বিডি ল্যাম্পস: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ৭৪ পয়সা , গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৩ টাকা ১৫ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৩ টাকা ৫১ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৪ টাকা ৪২ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো হয়েছে মাইনাস ১ টাকা ৫৮ পয়সা। এর আগের বছর একই সময়ে ছিল ১১ টাকা ৩২ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ৮৯ টাকা ৬৫ পয়সা। এর আগের বছর ছিল ৯৭ টাকা ২৯ পয়সা।

কপারটেক: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৫ পয়সা , গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৫১ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২২ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৮২ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে ১৩ টাকা ৫৯ পয়সা।

শ্যামপুর সুগার: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৭ টাকা ৩৯ পয়সা , গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ২২ টাকা ৫৩ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ২৬ টাকা ৬৯ পয়সা, গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৪৪ টাকা ১৫ পয়সা।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য হয়েছে মাইনাস ১১৯৪ টাকা ২৬ পয়সা।

ক্রাউন সিমেন্ট: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৯৯ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২১ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৬৩ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ৭৫ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৪৮ টাকা ৮৩ পয়সা।

গ্লোবাল হেভি: দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৪৫ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ২৬ পয়সা।

দুই প্রান্তিকে বা ৬ মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’২২) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ৯০ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি লোকসান ছিল ৪৮ পয়সা।

আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ৫২ টাকা ৭১ পয়সা।

 

Facebook Comments Box

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন

print sharing button
এ বিভাগের অন্যান্য খবর