1. [email protected] : bijoy : bijoy Book
  2. [email protected] : News Room : News Room
  3. [email protected] : news uploader : news uploader
  4. [email protected] : prothombarta :
আতঙ্ক স্কুলে স্কুলে
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪৯ দিন

আতঙ্ক স্কুলে স্কুলে

  • পোষ্ট হয়েছে : সোমবার, ১৭ জুলাই, ২০২৩

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু। আক্রান্ত বেশি হচ্ছে শিশুরা। এরই প্রভাবে বিদ্যালয়গুলোতে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ইতোমধ্যে রাজধানীর খ্যাতনামা দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান– ভিকারুননিসা নূন স্কুল এবং আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তিন শিক্ষার্থীর মৃত্যু অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের ভাবিয়ে তুলেছে।

 

সবার মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। প্রতিটি বিদ্যালয়ে কমে গেছে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি। তবে বিদ্যালয় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নে একটি আদেশ জারি করেই ‘দায়’ সেরেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। তাদের পক্ষ থেকে এ কার্যক্রমে কোনো তদারকি দেখা যায়নি।

 

সরেজমিন রাজধানীর একাধিক নামিদামি বিদ্যালয়ের আশপাশের পরিবেশ নোংরা ও অপরিচ্ছন্ন পাওয়া গেছে। বিদ্যালয়ের ভেতরে কিছুটা পরিষ্কারের উদ্যোগ দেখা গেলেও আশপাশ নিয়ে কর্তৃপক্ষ নির্বিকার।

 

নোংরা পরিবেশ, শ্রেণিকক্ষে আলোর স্বল্পতাসহ নানা কারণে মশার উপদ্রবের কথা জানিয়েছেন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। এখন অনেক অভিভাবকই সন্তানকে বিদ্যালয়ে পাঠাতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।

 

রাজধানীর কাকরাইলের খ্যাতনামা উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনের রাস্তায় ড্রেনের জমা পানিতে মশা খেলা করতে দেখা যায়। ময়লা-আবর্জনার স্তূপ, চারপাশে আবাসিক-অনাবাসিক ভবন ঘিরে মশার অবাধ বিচরণ।

 

প্রতিষ্ঠানের ভেতরে ভবনের বিভিন্ন তলায় ফুল গাছ লাগানো। সব গাছই টবে। অন্যদিকে, দীর্ঘদিন ধরেই মশার দখলে রয়েছে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনের সড়ক, ফুটপাত।

 

কিছু স্থানের ড্রেনে ময়লা চোখে পড়েছে। স্কুলঘেঁষা কলোনির বিভিন্ন স্থানে জমা পানি দেখা যায়। মূল ফটক দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতেই সবুজ মাঠে মশার উপদ্রব স্পষ্ট। প্রতিষ্ঠানটির তিন পাশেই আবাসিক এলাকা।

 

এর দেয়ালঘেঁষা খালি স্থানে ময়লা-আবর্জনা পড়ে থাকতে দেখা গেছে। যত্রতত্র ব্যবহৃত প্লাস্টিক সামগ্রীও পড়ে ছিল। এক পরিচ্ছন্নতাকর্মী জানান, শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভয় চলে এসেছে।

 

সচেতন হচ্ছে। অনেকেই শরীরে ক্রিম লাগিয়ে স্কুলে আসছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক জানান, উপস্থিতি অনেক কমে গেছে। বিদ্যালয়গুলোর পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম নিয়ে মাউশির কোনো তদারকি নেই। কেউ খোঁজ নিতেও আসে না।

মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, তিনি অসুস্থ। তবে সরকারি-বেসরকারি বিদ্যালয় তদারকির দায়িত্বে মাউশির উপপরিচালক (মাধ্যমিক) আজিজ উদ্দিন প্রথমবার্তাকে বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়টি দেখভালে আমরা আঞ্চলিক ৯ উপপরিচালককে বলেছি– তারা যেন সংশ্লিষ্ট জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন।

 

একাডেমিক কার্যক্রম সুপারভিশনের পাশাপাশি এটিতেও সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে। রাজধানীতে ২৫টি শিক্ষা থানা এলাকা রয়েছে। ঢাকা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে থানা শিক্ষা কর্মকর্তাদের বিষয়টি মনিটরিং করতে বলা হয়েছে।

 

গত ৩ জুলাই ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ইলমা জাহান (১৭) ডেঙ্গুতে মারা যায়। এর পর গতকাল রোববার ভোরে রাজধানীর মহাখালী ইউনিভার্সাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় বনশ্রী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ইশাদ আজহার (৯)।

 

ইশাদের পরিবার জানায়, ঈদুল আজহার ছুটি শেষে ৯ জুলাই প্রথম বিদ্যালয়ে যায় ইশাদ। জ্বর এলে পরীক্ষায় তার ডেঙ্গু শনাক্ত হয়। এর পর হাসপাতালে ভর্তি করলেও শেষরক্ষা হয়নি।

 

জানতে চাইলে আইডিয়াল স্কুলের অধ্যক্ষ ফাওজিয়া রাশেদী বলেন, ইশাদের মৃত্যুতে আমরা সবাই শোকাহত। তার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।

 

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা স্কুল পরিষ্কার রাখছি। শেণিকক্ষে পর্যাপ্ত অ্যারোসল, কয়েল ও মশা মারার ব্যাট সরবরাহ করা হয়েছে। ক্লাস শুরুর আগে-পরে এগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে।’

 

ডেঙ্গুতে মারা যাওয়া ভিকারুননিসার ছাত্রী ইলমার বাবা ইকবাল কবির জানান, ২৯ জুন ঈদুল আজহার দিন বিকেলে ইলমার জ্বর আসে। এক দিন বাদে পরীক্ষায় ডেঙ্গু শনাক্ত হয়। পরদিন পরীক্ষায় প্লাটিলেট কম পাওয়া গেলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

 

কিন্তু মেয়েকে বাঁচাতে পারেননি তিনি। জানতে চাইলে ভিকারুননিসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কেকা রায় চৌধুরী সমকালকে বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানের আঙিনা নিয়মিত পরিষ্কার করা হচ্ছে। আমাদের কোনো গাফিলতি নেই।’

 

১৩ জুলাই চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে আড়াই বছর বয়সী মরিয়ম জান্নাত এবং ১৪ জুলাই আরটিভির জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক আবুল হাসানের ছয় বছরের ছেলে তাশফিন আহনাফ ডেঙ্গুতে মারা যায়।

 

আহনাফ আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রথম শ্রেণির ছাত্র ছিল। মিরপুরের মনিপুর স্কুলের বেশ কয়েক শিক্ষার্থী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে। এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন বলেন, ‘আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। শিক্ষার্থীরা আক্রান্ত থাকলে সাধ্য মতো পাশে থাকব।’

 

ঈদুল আজহার ছুটি শেষে গত ৯ জুলাই সারাদেশে বিদ্যালয় চালু হয়। এ পর্যন্ত সাত দিন ক্লাস হয়েছে। আগামী বৃহস্পতিবার ক্লাস শেষে বিদ্যালয়গুলোতে গ্রীষ্মকালীন ছুটি শুরু হচ্ছে। ২ আগস্ট পর্যন্ত এ ছুটি থাকবে বলে জানিয়েছেন মাউশির উপপরিচালক আজিজ উদ্দিন।

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যে, চলতি বছর এখন পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৯ হাজার ৪৫৪ ডেঙ্গু রোগী। তাদের মধ্যে মারা গেছে ১০০ জন। ২০১৯ সালে ডেঙ্গুতে ১৭৯ জনের মৃত্যুর পর সবচেয়ে বড় প্রকোপ দেখা দেয় গত বছর, রেকর্ড ২৮১ জনের মৃত্যু হয়। এ বছর চুয়াডাঙ্গা ছাড়া সব জেলায় ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। প্রতিদিনই ডেঙ্গু আক্রান্ত বাড়ছে, যাদের বড় সংখ্যক শিশু।

 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুরা শক সিনড্রোমে থাকে। এ সময় সাধারণত শ্বাস-প্রশ্বাসে অসুবিধা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শিশুদের ত্বক নরম হওয়ায় মশা খুব সহজে কামড়াতে পারে।

 

আবার তারা বড়দের মতো মশা থেকে নিজেদের রক্ষা করতে পারে না। দিনে ঘুমানোর সময় মশারি টানানোয় শিশুদের মধ্যে ডেঙ্গু আক্রান্তের হার বেশি।

Facebook Comments Box

শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন

print sharing button
এ বিভাগের অন্যান্য খবর