আজ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ছেলের ১৩ বছর, আধার কার্ডে বাবার বয়স ১২

নিজস্ব প্রতিবেদক,প্রথমবার্তা(রাইসুল ইসলাম): ভারতের ভোটার থেকে আধার কার্ডে নাম, ঠিকানা, বয়স ভুলের জেরে অনেকেই মহা বিপাকে পড়েছেন। ভুল নাম-ঠিকানা-ছবি নিয়ে বিহাল অবস্থার মধ্যে মানুষ রাত জেগে সংশোধনের লাইনে দাঁড়িয়ে সময় পার করছে।

কোথাও পুরুষের নামের পাশে নারীর ঘোমটা টানা ছবি। কোথাও আবার নারীর নামের উপরে পোক্ত গোঁফের অচেনা পুরুষ। ভারতের ডোমকলের নাজমুল ইসলাম এ ব্যাপারে বলেন, ভোটার, আধার বা রেশন কার্ডে ভুল সচরাচর থাকে। এত দিন সেসব নিয়ে মাথা ঘামাতাম না। সবাই চেনে আমাকে। তাই মাথা ঘামাইনি। কিন্তু এখন তো আর সে উপায় নেই, আর একটু যত্ন নিয়ে যদি কাজটা করত।

ডোমকলের কুপিলা গ্রামের মালেক শেখ বছরখানেক আগে কার্ড হাতে পেয়েই জ্ঞান হারানোর উপক্রম। ৩৯ বছরের মালেকের বয়স দেখানো হয়েছে ১২ বছর। যা তার ছেলে নবিকুলের থেকেও এক বছর কম!

মালেক বলেন, কী আজব ব্যাপার ভাবুন তো, এক বার ভেবে দেখল না, আমার ছেলের বয়স ১৩ আর আমার কিনা ১২, হয় কখনো!

ডোমকলের বাবলাবোনার একরামুল হকের ঠিকানা ছিল লালগোলা। হয়ে গেছে অচেনা-অজানা এক গ্রাম। রসুলপুরের আনোয়ার হোসেনের নামের পাশে লেখা ‘ফিমেল’। এই তালিকা অনেক লম্বা।

ডোমকলের টগরী বিবি বলেন, শুনছি, কার্ডে ভুল পেলেই ক্যাম্পে ধরে নিয়ে যাবে, তা আমাদের দোষটা কী বলেন দেখি, সরকারের ভুলে আমাদের এমন নাওয়া-খাওয়া ভুলে খেসারত দিতে হবে কেন?

এদিকে আধার কার্ডে ভুলের জেরে ঘুমের আড়ালেও ভিন দেশি হয়ে যাওয়ার দুঃস্বপ্ন তাড়া করছে মোস্তাকিনকে। কারণ, তার নাম উঠেছে বিদেশির তালিকায়। অন্তত ভোটার কার্ডে তেমনই সিলমোহর পড়ে গেছে।

এত দিন তা নিয়ে তেমন মাথাব্যথা ছিল না মোস্তাকিন শেখের। কিন্তু এনআরসি’র আঁধার মেঘে সে ভয় জাঁকিয়ে ছেয়েছে তার বুকে। মোস্তাকিন বলেন, ঘুমের মধ্যেও মাঝে মাঝে আঁতকে উঠছি গো! সেদিন নাকি ঘুমের ঘোরে বলছিলাম, আমায় নিয়া চলল গো, শুনে বৌ ভাবল ভূতে পেয়েছে!

এই পোস্টটি আমাদের সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন