আজ ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

টেলিভিশনে ছাদে-বারান্দায় বাচ্চাদের এবারের ঈদ আনন্দ

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃএবারের ঈদ অন্যরকম, অন্যরকম মানে যার তুলনা পূর্বের কোনো ঈদের সঙ্গেই তুলনা হয় না। এই রকম ঈদ দেখেনি নতুন প্রজন্ম, দেখেনি শিশুরাও  যারা ঈদ মানেই ছন্নছাড়ার দল।

 

এবারের ঈদ আনন্দের বর্ণচ্ছটায় এনেছে বাধা। শিশুরাও এবার ঈদ ঘরবন্দি হয়ে কাটাচ্ছে। বাইরে বেরনোর কোনো সুযোহ নেই। রাজধানী ঢাকা সহ দেশের প্রত্যেক জেলা উপজেলা শহরের শিশুদের বিনোদন কেন্দ্র গুলো বন্ধ।

 

তাই এবার শিশুরা ঘরে বারান্দায় ছোটাছুটি করে ঈদ কাটাচ্ছে। রাজধানী ঢাকার অধিকাংশ অভিভাবকেরা শিশুকে একটু বিনোদন দিতে বড়জোর ছাদে নিয়ে যাচ্ছেন।

 

সেখানে বাচ্চাদের সাথে নিজেরাও খেলা করছেন, ভুলিয়ে দিতে চাইছেন মহামারির এই ঘরবন্দি জীবনের দুঃখবোধ, অপ্রাপ্তিবোধ। শুধু যে ঢাকা তাই নয়, আমাদের প্রতিনিধির সাথে কথা বলে প্রায় সবখানেই এমনই চিত্রের কথাই পাওয়া গেছে।

 

টেলিভিশনে কার্টুন ছবি, বারান্দায়, কিংবা ছাদে সামান্য খেলাধুলা- এসবই এবারের ঈদে শিশুদের বিনোদনের সহায়ক। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে এবার ঈদে শিশুদের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখার আহ্বান জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

 

বলা হয়েছে, ঈদের আনন্দ উচ্ছলতার কারণে তারা যেন ঝুঁকির সম্মুখীন না হন।করোনাভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা রবিবার এ আহ্বান জানান।

 

নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘শিশুদের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখবেন। ঈদের আনন্দ উচ্ছলতার কারণে তারা যেন ঝুঁকির সম্মুখীন না হন। অবশ্যই শিশুসহ সবাইকে নিয়ম অনুযায়ী মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

 

বাইরে থেকে ঘরে ফিরে সাবান পানি দিয়ে ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধুয়ে নেবেন। বাইরের খোলা খাবার খাবেন না।’ তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস নাক-মুখ ও চোখের মধ্য দিয়ে শরীরে প্রবেশ করে।

 

তাই নিজের হাতের প্রতিও সজাগ থাকবেন। অযথা নাক, মুখ ও চোখে হাত দেবেন না। শিশুদের এ বিষয়ে সচেতন করবেন। মনে রাখবেন, করোনাভাইরাস বিষয়ে সচেতনতা, সতর্কতা ও নিয়ম মেনে চলাই আপনাকে সুরক্ষিত রাখতে পারে।’

এই পোস্টটি আমাদের সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন