আজ ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

করোনায় আক্রান্ত এবার পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী!

প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ করোনা সংক্রমিত হলেন পশ্চিমবঙ্গের ফায়ার সার্ভিস মন্ত্রী ও রাজ্যটির ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিধাননগর কেন্দ্রের বিধায়ক সুজিত বসু।

 

জানা গেছে, সম্প্রতি মন্ত্রীর বাড়িতে রান্নার কাজে নিযুক্ত পরিচারিকার জ্বর আসে। করানা পরীক্ষা করালে তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এর পরেই ফায়ার সার্ভিস মন্ত্রী ও তার স্ত্রী এবং বাড়ির আরও পরিচারকের নমুনা পরীক্ষা করা হয় এবং সেখানে তাদের প্রত্যেকের শরীরেই করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে।

 

যদিও মন্ত্রীর শরীরে করোনার কোন উপসর্গই ছিল না বলে জানা গেছে। তবে মন্ত্রীর দুই সন্তানের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। করোনায় সনাক্ত হলেও মন্ত্রী আপাতত হোম কোয়ারেন্টাইনেই আছেন।

 

শুক্রবার মন্ত্রী বলেন, ‘চিকিৎসকের পরামর্শে স্ত্রীকে নিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছি। বাড়ির পরিচারিকাও হোম কোয়ারেন্টাইনে আছে।’ মন্ত্রী জানান, আপাতত তিনি ও তার স্ত্রী উভয়েই ভাল আছেন এবং চিকিৎসক যে ওষুধ দিয়েছে সেগুলোই খাওয়া হচ্ছে।

সুজিত বসুই হলেন মমতা ব্যনার্জির মন্ত্রিসভার একমাত্র সদস্য, যার শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের পর কলকাতাসহ পাশ্ববর্তী উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার বিস্তীর্ণ এলাকায় বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন মন্ত্রী সুজিত বসু।

 

লকডাউনের সময় বহু বস্তি ও ঘনবসতি এলাকায় গিয়ে ত্রাণ বন্টনেও দেখা গিয়েছিল মন্ত্রীকে। এমনকি রাজ্য সরকারের সচিবালয় নবান্নে গিয়ে ক্যাবিনেট মিটিং’এও অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

 

সেক্ষেত্রে মন্ত্রী কার কার সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের চিহ্নিত করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কারণ কোন উপসর্গ ছাড়াই মন্ত্রিসভার এক সদস্যের শরীরে করোনা ধরা পড়ায় যথেষ্ট আতঙ্কিত মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরাও।

 

রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে খবর শুক্রবার পর্যন্ত গোটা রাজ্যে করোনায় সনাক্তের সংখ্যা ৪৫৩৬ জন এবং মৃত ২২৯ জন।

এই পোস্টটি আমাদের সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন