আজ ৩০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সর্বস্ব হারাচ্ছে অনেকে সুন্দরীদের ফাঁদে পা দিয়ে

প্রথমবার্তা,প্রতিবেদকঃ আমারে কুত্তার মতো পিটাইছে , পিটাইয়া গোপনাঙ্গে আগুন লাগায় দিছে। যখন আগুন লাগাইছে, তখন সেই যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে ওষুধ চাইছি। এর বদলে আমাকে পেস্ট এনে দিছে। প্রতারণার শিকর হয়ে এমন নির্মম নির্যাতনের কথা জানালেন সৌদী প্রবাসী রাসেল।রাসেল জানান, অর্থের লোভে অভিযুক্ত মারিয়া আক্তার মন্টি, পাপ্পু ও রাসেলের শ্বশুড় নয়ন ইসলাম বাবুলের নিয়াতনের কাছে হার মানবে ১৯৭১ সালের বাঙালিদের উপর পাকিস্তানীদের নির্যাতন।তিনি জানান, মন্টির প্রতারণা চক্রে আছে কথিত কয়েক স্বামী নিজের বাবা-ভাইসহ আরো আটজন।

আছে প্রতারণা কাজে ব্যবহার করার জন্য বিভিন্ন পোশাক।এছাড়া বিভিন্ন নামে করা বেশ কয়েকটি জন্ম নিবন্ধন ও পরিচয় পত্র।এরই মধ্যে মন্টির ৩০টির অধিক বিয়ে করার তথ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে।তবে মন্টি নিজে স্বীকার করেছে ৫টি বিয়ের কথা। বিত্তবানদের প্রেম ও বিয়ের ফাঁদে ফে্লে টাকার্ আত্মসাৎ করাই তার পেশা।২০১৮ সালে মন্টির নজর পড়ে সৌদী প্রবাসী রাসেলের দিকে।প্রেমের ফাঁদে ফেলে দ্রুত ধরাশয়ী করে ফেলেন তাকে। জমিয়ে তুলেন প্রেমের সম্পর্ক। মন্টির বাকা হাসিতে প্রেমে অন্ধ হয়ে যান রাসেল।পরে ব্ল্যাক মেল করে কোটে গিয়ে বিয়ে করে তারা।

বিয়ের পর রাসেল সৌদি ফেরত গেলে অন্তসঃত্ত্বা হওয়ার কথা বলে কৌশলে শ্বশুড় বাড়ি থেকে স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ অর্থ নিয়ে নিজের বাপের বাড়ি চলে যান মন্টি। এরপরের ঘটনা দেখুন সময় টিভিরি এই নিউজ ভিডিওতে।

এই পোস্টটি আমাদের সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন