প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: খোলা বাজারে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনে নিয়োজিত মানি এক্সচেঞ্জগুলোর জন্য নগদ ডলার রাখার সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নির্দেশনা অনুযায়ী এখন থেকে নিজেদের কাছে নগদ সর্বোচ্চ ২৫ হাজার ডলার কিংবা সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা সঙ্গে রাখতে পারবে এক্সচেঞ্জগুলো। আর দেশি মুদ্রা ৫০ লাখ টাকার বেশি রাখা যাবে না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা ও নীতি বিভাগ বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা অনুমোদিত সব মানি এক্সচেঞ্জের কাছে পাঠিয়েছে। খোলা বাজারে বিদেশি মুদ্রার সরবরাহ বৃদ্ধি ও দর নিয়ন্ত্রণে এ উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা মতে— এক্সচেঞ্জগুলো নিজেদের কাছে নগদ সর্বোচ্চ ২৫ হাজার ডলার কিংবা সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা রাখতে পারবে। দিনের লেনদেনের পরে এসব প্রতিষ্ঠান ২৫ হাজারের বেশি ডলার বা অন্যান্য বৈদেশিক মুদ্রা নিজস্ব বৈদেশিক মুদ্রা হিসাবে (এফসি) জমা রাখতে হবে।

আবার জমা করা এসব ডলার পরে প্রয়োজন আকারে তুলতে পারবে। সেক্ষেত্রেও সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। আর সেটি হলো— ডলার ব্যবসায়ীদের বৈদেশিক মুদ্রা (এফসি) হিসাবেও ৫০ হাজার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রার চেয়ে বেশি জমা রাখতে পারবেন না। এ অবস্থায় প্রতিষ্ঠান চাইলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কাছে ডলার বিক্রি করতে পারবে। আবার নতুন এ নির্দেশনার আলোকে এখন থেকে লেনদেন শেষে স্থানীয় মুদ্রা নগদ ৫০ লাখ টাকার বেশি রাখতে পারবে না মানি এক্সচেঞ্জগুলো।