ফরিদপুর-৩ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শামীম হকের প্রার্থিতার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে আজাদের আবেদনের ওপর শুনানি চলতি সপ্তাহে শুনবেন না আপিল বিভাগ। ফলে এ বিষয়ে শুনানি হবে নির্বাচনের পর।

মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ কে আজাদের পক্ষের আইনজীবীর সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নট দিস উইক শুনানি এ সপ্তাহে নয় এ আদেশ দেন।

আদালতে এ কে আজাদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তানজীব উল আলম।

গত ১৫ ডিসেম্বর ফরিদপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শামীম হকের প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে শুনানি শেষে এই রায় দেয় ইসি। এই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করেন শামীম হক।

গত ১৮ ডিসেম্বর শামীম হকের প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত বহাল রাখেন হাইকোর্ট। এরপর প্রার্থিতা ফিরে পেতে আপিল বিভাগে আবেদন করেন তিনি। ১৯ ডিসেম্বর আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম শামীম হকের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করে তাকে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ দিতে নির্দেশ দেন। এ কে আজাদ গত ২১ ডিসেম্বর শামীম হকের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে চেম্বার আদালতে আপিল করেন। আদালত ২ জানুয়ারি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন।